অনেক মেয়ের সাথেই আমার মেলামেশা ছিলোঃ সালমান মুক্তাদির

প্রকাশঃ জানুয়ারি ১৯, ২০১৮

সকলের পরিচিত মুখ সালমান মুক্তাদির। খুব কম সময়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে পৌঁছেছেন তিনি। তাকে ঘিরে আলোচনা-সমালোচনা হওয়াটাই স্বাভাবিক। সম্প্রতি ‘মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ’ জেসিয়া ইসলামের সঙ্গে তার সম্পর্ক জড়িয়ে যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে সেটি দূর করতে বিডিমর্নিং এর সাথে কথা বললেন সালমান মুক্তাদির। সাক্ষাতে ছিলেন নিয়াজ শুভ-

কেমন আছেন?

সালমান মুক্তাদিরঃ ভালো।

বর্তমান বিতর্ক নিয়ে আপনার কি মতামত?

সালমান মুক্তাদিরঃ আমি সবসময় খোলামেলা কথা বলি। যেহেতু খুব কম বয়সে আমার হাতে জনপ্রিয়তা ও টাকা চলে এসেছে, সেহেতু অনেক মেয়ের সাথেই আমার মেলামেশা ছিলো। কিন্তু আমি কখনো এগুলো সাপোর্ট করিনি।

আসল ঘটনা কি?

সালমান মুক্তাদিরঃ যে ঘটনাটা দেখানো হচ্ছে সেটা পুরোটাই ফেইক। জেসিয়ার আইডি হ্যাক, সে ব্যাপারে চার মাস আগেই থানায় জিডি করা হয়েছে। এটা অবশ্যই সাইবার ক্রাইম। কিন্তু যেহেতু হ্যাকার দেশে থাকে না তাই তার বিরুদ্ধে আমি আইনগত কোন ব্যবস্থা নিতে পারছি না।

হ্যাকারকে শনাক্ত করতে পেরেছেন?

সালমান মুক্তাদিরঃ না, তবে হ্যাকারকে কে হ্যান্ডেল করেছে সেটি আমি জানি।

জেসিয়া ইসলামের সঙ্গে সালমান মুক্তাদির

সে কে?

সালমান মুক্তাদিরঃ পার্থ ও তাহসিন।

হ্যাক হওয়ার পর জেসিয়ার সেই আইডির সাথে কি আপনার চ্যাট হতো?

সালমান মুক্তাদিরঃ না, হ্যাক হওয়ার পর চ্যাট হতো না।

জেসিয়ার সাথে আপনার বর্তমান সম্পর্ক কেমন?

সালমান মুক্তাদিরঃ অন্য সবার মতোই। আগেই বলেছি আমার অনেক বান্ধবী আছে। বান্ধবী থাকতেই পারে। আর আমার ব্যক্তিগত কোন বিষয় যদি থাকে তাহলে তো সেক্ষেত্রে কিছু গোপনীয়তা রাখতেই হবে। আমার এটা দিয়ে কারো কোন ক্ষতি তো হচ্ছে না।

পরবর্তী কি পদক্ষেপ নিচ্ছেন?

সালমান মুক্তাদিরঃ আমি অলরেডি পদক্ষেপ নিয়েছি। গতকাল বলেছি, তোমার এসব ডার্টি গেইম আমার ভালো লাগছে না। ও আমাকে গালি দিতো তাহলে ঠিক ছিলো, কিন্তু ও আমাকে গালি দিতে না পেরে আমার বেস্ট ফ্রেন্ড, বান্ধবী তাদেরকে অ্যাটাক করছে। বিষয়টি খুবই আনইথিক্যাল।

এতক্ষণ সময় দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

সালমান মুক্তাদিরঃ আপনাকেও ধন্যবাদ।

কমেন্টস