কাজের বিনিময়ে কারো সাথে রাত কাটাই নাইঃ প্রভা

প্রকাশঃ ডিসেম্বর ৩০, ২০১৭

বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

দেশের তারকা অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভা। ক্যারিয়ারে কাজের চাইতে প্রেম-বিয়ে এবং সংসারসহ নানান বিষয়ে অভিনেত্রী প্রভাকে নিয়ে আলোচনা হয়েছে বেশি। এক কথায় বলা চলে বাংলাদেশের ছোটপর্দার অন্যতম বিতর্কিত অভিনেত্রী প্রভা। ব্যক্তিজীবনে নানা চড়াই-উতরাইয়ের মধ্যে দিয়ে তার পথচলা। তবুও নিজের ক্যারিয়ার নিয়ে এখনো ঠিক পথে  যুদ্ধ করছেন এই অভিনেত্রী। দীর্ঘবিরতির পর ফিরে এসে একের পর এক অভিনয় করে চলেছেন এখন। তবে এখনো নিজের অতীতের একটা অনিচ্ছাকৃত ভুলকে নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতর মধ্যে পড়তে হয় তাকে। ভিত্তিহীন নানা গুজবে ব্যক্তিজীবন অতিষ্ঠ হয়ে উঠে। তাই এসব থেকে মুক্তি দেয়ার জন্য সবার কাছে অনুরোধ করেছেন প্রভা।

শনিবার বিকেলে নিজের ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে বাঁচতে দেয়ার আকুতি জানান প্রভা। এদিকে সমালোচনা, গুজবে কান না দিয়ে সততার সঙ্গে কাজ করে যেতে প্রভাকে অনুরোধ করেছেন ভক্ত ও সহকর্মীরা।

ফেসবুক স্ট্যাটাসটি প্রভা বলেনঃ আমি সাদিয়া জাহান প্রভা। জীবনে কোনোদিন মাদক সেবন করি নাই। টাকা বা কাজের বিনিময়ে কারো সাথে রাত কাটাই নাই। সজ্ঞানে কোনোদিন কারো ক্ষতি করি নাই। একটা সশিক্ষিত পরিবারের সন্তান আমি। জীবনে অনেক বড় বড় পরীক্ষা দিয়েছি কিন্ত হার মানিনি। কারন আমি নির্দোষ তাই।

তিনি আরো বলেন, আমাকে নিয়ে ভ্রান্ত ধারনাগুলো বন্ধ করুন। খুবই সাধারন জীবন আমার। আজকে অনেক অসহায় হয়ে আমার নিজের জীবনের স্টেটমেন্ট দিলাম। বাঁচতে দিন আমাকে।

উল্লেখ্য, ২০১০ সালের এপ্রিল মাসের ১৬ তারিখে দীর্ঘদিনের প্রেমিক রাজীবের সঙ্গে বাগদান হয়েছিল আলোচিত মডেল অভিনেত্রী সাদিয়া জাহান প্রভার। বাগদান হলেও বিয়ে হয়নি তাদের। সম্পর্কে ভাটা পড়ে অভিনেতা অপূর্বর সঙ্গে নতুন প্রেমকাহিনীর কারণে। যথারীতি তাই হলো। অনামিকায় রাজীবের দেয়া আংটি খুলে রেখে অপূর্বর সঙ্গে পালিয়ে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন প্রভা।

১৯শে আগস্ট বৃহস্পতিবার তারা মালাবদল করেন। খবরটি চাউর হতেই হট্টগোল লেগে যায় সর্বত্র। বাগদান হওয়া স্বামীকে বিয়ে না করে অন্য একজনকে জীবনসঙ্গী করে নেন প্রভা। বিষয়টি নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েন এই মডেল অভিনেত্রী। সমালোচনা কিংবা আলোচনা যা-ই হোক। এদেশে মিডিয়াতে কোনো ঘটনা ঘটলে সেটা খুব বেশিদিন স্থায়ী হয় না। মানুষ নতুন কোনো খবর পেলেই ভুলে যায়। কিন্তু প্রভার জীবনের সে ঘটনা ভোলেননি কেউ। কারণও আছে।

প্রভার সঙ্গে অপূর্বর বিয়ের কিছুদিন পরই ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলেন রাজীব। তারপরের ঘটনা কারও অজানা নয়। অপূর্বর ঘরণী হওয়ার আগে প্রেমিক রাজীবের সঙ্গে কাটানো অন্তরঙ্গ মুহূর্ত ফাঁস হয়ে যায় ইউটিউবে। ২৭ মিনিটের একটি ভিডিও মুহূর্তেই মানুষের হাতে হাতে পৌঁছে দেন রাজীব।

 এ নিয়ে দেশ-বিদেশে শুরু হয় তুমুল বিতর্ক। কিছুদিন পর অবশ্য সে ভিডিওটি ইউটিউব থেকে মুছে দেয়া হয়। হলেই কি! মানুষের যা দেখার তো সেটা দেখেই নিয়েছেন। এরই জের ধরে ইতি টানলো প্রভা-অপূর্বর সাজানো নতুন সংসার।

২০১১ সালের ১১ই ফেব্রুয়ারি তারা বিচ্ছেদে চলে যান। মূলত অপূর্বই প্রভাকে ডিভোর্স দিয়েছেন। এরপর টানা  তিন বছর লাপাত্তা এ অভিনেত্রী। মিডিয়া থেকে দূরেই সরে যান প্রভা। অবশ্য এর মধ্যে ২০১১ সালের ১৯শে ডিসেম্বর দ্বিতীয়বার বিয়ের পিঁড়িতে বসেন তিনি। একটি করপোরেট কোম্পানির কর্মকর্তা মাহমুদ শান্তর সঙ্গে নতুন জীবন শুরু করেন প্রভা।

টানা তিন বছর মিডিয়া থেকে দূরে থেকে ২০১৪ সালে আবারও আসেন। অতীতের সব গ্লানি মুছে নিজেকে নতুন করে মিডিয়ার সহযাত্রী হিসেবে যাত্রা শুরু করেন তিনি। শান্তকে বিয়ে করলেও সংসার খুব বেশিদিন করেননি প্রভা। এক বছরেরও বেশি সময় ধরে শোনা যাচ্ছে, শান্তর সঙ্গে সংসার করছেন না প্রভা। ২০১৫ সালের মাঝামাঝিতেই ডিভোর্স হয়েছে তাদের। তবে এতকিছুর পরেও সবকিছু ভুলে কাজের মধ্যে ডুবে আছেন তিনি। বর্তমানে ছোট পর্দার কাজ নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

কমেন্টস