এফডিসিতে আর আসবো না- বাপ্পারাজ

প্রকাশঃ আগস্ট ২৬, ২০১৭

বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

সদ্য প্রয়াত কিংবদন্তি নায়করাজ রাজ্জাক চলে গেছেন। গত ২১ আগস্ট হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয় তার। তার স্মরণে ভালোবাসা আর প্রিয় কাজের জায়গা এফডিসিতে চলচ্চিত্র পরিবার স্মরণসভা আয়োজন করে। সেখানে রাজ্জাকের বড় ছেলে বাপ্পারাজ চাপা ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আজ শনিবার বেলা এগারোটা থেকে এফডিসিতে শুরু হয়েছে চিত্রনায়ক রাজ্জাক স্মরণসভা ও মিলাদ মাহফিল। অনুষ্ঠানে উপস্থিত আছেন চিত্রনায়ক ফারুক, আলমগীর, সোহেল রানাসহ চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট অসংখ্য অভিনেতা অভিনেত্রী ও নির্মাতা। অনুষ্ঠানে বাবাকে স্মরণ করার পাশাপাশি চাপা ক্ষোভ ও বর্তমান সংকটাপন্ন চলচ্চিত্র নিয়ে বাপ্পারাজ বলেন, ‘আপনারা যদি সকল নিষেধাজ্ঞা, মামলা তুলে না নেন, তাহলে এফডিসিতে আর আসবো না। হয়তো এটাই হবে আপনাদের সঙ্গে শেষ দেখা।’

তিনি বলেন, ‘আমিও হয়তো ভুল করে অনেক কথা বলেছি। আমাকে ক্ষমা করে দেবেন। আমি ভুল করেছি এজন্য নোটিশ পাঠানোর দরকার নেই। শাকিব ভুল করেছে এজন্য বয়কট করার দরকার কী? শাকিবকে ডাকলে শাকিব আসবে না কেন? আসুন আমরা সব ভুলে আবারও একসঙ্গে কাজ করি। এ অবস্থা চলতে থাকলে চলচ্চিত্র ধ্বংস হয়ে যাবে। এটা আমরা কখনই চাই না।’

বাপ্পারাজ আরো বলেন, ‌‘আমার বাবাকে নিয়ে প্রশ্ন আছে অনেকের যে, রাজ্জাক সাহেব সিনেমা হল না করে মার্কেট কেনো করলেন? ফাইন, এই তর্কে আমি যাবো না। তিনি কেনো মার্কেট করলেন, সিনেমা হল করলেন না! বাট একটা ভুল ধারনা আছে যে উনি সিনেমা হলের নাম করে মার্কেটটা করেছেন এবং পারমিশনটা নিয়েছেন সিনেমা হল করার। কিন্তু না, মার্কেটের নাম করেই তিনি সেখানে মার্কেট করেছেন। পরবর্তীতে সেখানে আমরা সিনেমা হল করার চেষ্টা করেছি। রাজউক থেকে পারমিশন দেয়া হয়নি। তার উপর আমাদের মার্কেটটায় প্রচুর পিলার ছিলো, সেগুলো ভেঙে স্পেস তৈরি করাও সম্ভব হয়নি। তারপর উপরে করতে চেয়েছিলাম, তখনও পারমিশন দেয়া হয়নি। কিছুদিন আগেও সেখানে একটা বিসিকের একটা অডিটোরিয়াম ছিলো, ওটাও আমরা সিনেমা হলের জন্য নেয়ার চেষ্টা করেছি। কিন্তু উত্তরাতে পাশে একটা স্কুল থাকার জন্য সেটারও পারমিশন দেয়া হয়নি।’

এরপর তিনি আরো বলেন, ‘অনেকের ভুল ধারনা আছে, আমি ক্লিয়ার করে দিলাম যে রাজ্জাক সাহেব দুই নম্বারি করে মার্কেট বানাননি, এক নম্বরি করেই মার্কেট বানিয়েছেন। রাজ্জাক সাহেব যদি দুই নম্বরি করতেন, তাহলে উত্তরায় আরো চার পাঁচটা মার্কেট থাকতো। কিন্তু তিনি তা করেননি।’

এই শোক সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন ফারুক, সূচন্দা, রোজিনা, আলমগীর, ফেরদৌস, নূতন, ওমর সানী, সম্রাট, আমজাদ হোসেন, এফডিসির এমডি তপন কুমার, মিশা সওদাগর, জায়েদ খান, বাপ্পী প্রমুখ।

প্রসঙ্গত, চলচ্চিত্র পরিবার মাঝখানে শাকিবকে কয়েক দফায় বয়কট ও নিষিদ্ধ করলে তার প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন চিত্রনায়ক বাপ্পারাজ। সেসময় চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতি বাপ্পারাজকেও বহিষ্কারের কথা বলেছিলো। শুধু তাই না, তার চলচ্চিত্র পরিচালক সমিতির সদস্যপদ বাতিল করে দেয়ারও হুমকি দেয়া হয়েছিলো। যাতে কষ্ট পেয়েছিলেন কিংবদন্তি নায়করাজ রাজ্জাকও।

Advertisement

কমেন্টস