এই আব্দুল জব্বার আর কখনো জন্ম নিবে না !

প্রকাশঃ আগস্ট ১৫, ২০১৭

সুমাইয়া আকরাম।।

ওরে নীল দরিয়া/আমায় দেরে দে ছাড়িয়া/বন্দী হইয়া মনোয়া পাখি হায়রে/কান্দে রইয়া রইয়া……. জীবনের এমন সময়ে এসে যেন আসলেও বন্দী হয়ে আছেন কন্ঠশিল্পী, সৈনিক ও বাংলা সংগীত জগতের কিংবদন্তী আব্দুল জব্বার। এই আব্দুল জব্বার আর কখনো জন্ম নিবে না।

স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় গান গেয়ে গেয়ে তিনি যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেছিলেন, দেশকে স্বাধীন করেছিলেন অথচ আজ জীবনযুদ্ধে থেমে গেছে তার কন্ঠ, শরীর। গত তিন মাসের বেশি সময় ধরে পড়ে আছেন রাজধানীর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ৬২০ নং কেবিনে।

আব্দুল জব্বারের ছেলে বাবু জব্বারের সাথে কথা হলে তিনি জানান, ‘আব্বু অসুস্থ, এখন আইসিইউতে আছেন। তার কিডনী ড্যামেজ, কিডনী নাই। আপনারা বাবার জন্য দোআ করবেন। বাবার মত এমন মানুষ একজন শুয়ে আছে আর ১৬ কোটি বাঙালি আছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমার বাবার দৃঢ় বিশ্বাস তিনি সুস্থ হবেন বিদেশে গিয়ে উন্নত চিকিৎসা পেলে। বাবা বলেন তার সরকার তাকে সাহায্য করলেই তিনি ফিরে আসবেন। বাবার ইচ্ছা বেঁচে থাকার, গান করার।’

আব্দুল জব্বার সকলের কাছে ১টাকা করে চেয়েছেন এমন কথার প্রতিউত্তরে তার ছেলে জানান, ‘বাবা এমন কথা বলেননি। এমন কথা তিনি কেন বলবেন? তার তো সম্মান আছে তিনি মানুষের কাছে হাত পাতবেন কেন! তার সরকার তাকে সাহায্য করলে তিনি একাই সুস্থ হবেন। ১৬ কোটি মানুষ ১ টাকা করে দিলে তো ১৬ কোটি টাকা হবে। বাবার জন্য এত টাকার দরকার নেই।’

জানা যায়, আব্দুল জব্বারের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজন প্রায় দু’কোটি টাকা। যা সরকার চাইলেই ব্যবস্থা করে দিতে পারে বলে দাবি করেন ছেলে বাবু জব্বার। বাবু জব্বার এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘২ কোটি সরকার দিতে না পারলে অর্ধেক দিয়ে আমাদের সহায়তা করুক, আমার বাবাকে বাঁচাক বাকি অর্ধেক আমরা জোগাড় করবো।’

পরিবারের দেয়া তথ্যানুযায়ী আব্দুল জব্বারের কিডনি নষ্ট হয়ে গেছে। তবে চিকিৎসকদের ভাষ্য যত দ্রুত সম্ভব কিডনি ট্রান্সপ্ল্যান্ট না করলে শরীর অসুস্থ হয়ে যাবে। সময়ের স্বল্পতার কারণে দ্রুত তার চিকিৎসা শুরু করা প্রয়োজন।

বাবার জন্য সকলের কাছে দোআ চেয়ে বাবু জব্বার বলেন, ‘বাবা এখন কথা বলতে পারছেন। সবার সাথেই তিনি কথা বলেন। আপনারা বাবার জন্য দোয়া করবেন।’

কমেন্টস