জিয়া হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলো রুবির স্বামী

প্রকাশঃ আগস্ট ১৩, ২০১৭

নিয়াজ শুভ।।

ফের মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছে প্রয়াত চিত্রনায়ক সালমান শাহ্‌ হত্যা মামলা। দীর্ঘদিন পর তার হত্যা মামলার আট নাম্বার আসামী রাবেয়া সুলতানা রুবি নামে আমেরিকা প্রবাসী এক নারী দাবি করেন, ‘সালমান শাহ্‌ আত্মহত্যা করেনি, তাকে খুন করা হয়েছে।’

ভিডিওবার্তায় রুবির এমন স্বীকারোক্তি সারাদেশে সাড়া ফেলে দেয়। কিন্তু কে এই রুবি? জানা যায়, রুবি পেশায় একজন বিউটিশিয়ান ছিলেন। তিনি থাকতেন সালমানের ফ্ল্যাটের অর্থাৎ ইস্কাটন প্লাজার উত্তর পাশের বিল্ডিংয়ে।

রুবি রাজনীতিবিদ, সাবেক মন্ত্রী আব্দুর রশিদের মেয়ে। প্রয়াত স্বামী ক্যাপ্টেন জামিল ছিলেন তার প্রথম স্বামী। জিয়াউর রহমান মারা যাওয়ার পর যে ১৩ জন সেনা কর্মকর্তাকে ফাঁসির কাষ্ঠে ঝুলানো হয় তার স্বামী ছিলেন তাদেরই একজন।

রুবির প্রথম স্বামী ক্যাপ্টেন জামিলের বাবার নাম মেজর জেনারেল এ এফ এম আব্দুল হক। জিয়া হত্যাকাণ্ডে ক্যাপ্টেন জামিলকে যখন ফাঁসি দেয়া হয়, তখন আইজি প্রিজন ছিলেন তারই বাবা মেজর জেনারেল এ এফ এম আব্দুল হক। বাবার আন্ডারেই ছেলের ফাঁসি হয়।

বর্তমানে এক চাইনিজের সঙ্গে সংসার করছেন রুবি। ক্যাপ্টেন জামিলের সংসারে জন্ম নেয়া পুত্র ভিকিকে নিয়ে ৩১ বছর আগে তিনি এই চাইনিজকে বিয়ে করেন। এই সংসারেও এক পুত্রসন্তানের জন্ম দিয়েছেন তিনি। সালমানের মৃত্যুর বেশ কয়েক বছর পর তিনি আমেরিকায় পাড়ি দেন। বর্তমানে সেখানেই স্বামী-সন্তান নিয়ে বাস করছেন রুবি।

কমেন্টস