‘কাজ থেকে দূরে, আড্ডা অবসরে’

প্রকাশঃ জুলাই ১৪, ২০১৭

বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

ফোকসম্রাজ্ঞী সাংসদ মমতাজ। গানের মানুষ হলেও অভিনয়ের মানুষদের সঙ্গে তার নিবিড় সম্পর্ক। মাঝে মাঝে ঘরোয়া আড্ডায় জম্পেশ থাকেন তারা। তাদের ভালোবাসার বন্ধুত্ব অটুট।

সম্প্রতি নাট্যকার বৃন্দাবন দাসের স্ত্রী ও ছোট পর্দার পরিচিত মুখ শাহনাজ খুশী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে একটি ছবি আপলোড দিয়েছেন। ক্যাপশনে লিখেছেন, ‘কাজ থেকে দূরে, আড্ডা অবসরে’। ছবিতে তাদের আনন্দ বাঁধ মানছে না। চঞ্চল চৌধুরীর তোলা সেলফিতে হাসিমুখে ধরা দিয়েছেন জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী ও সাংসদ মমতাজ, তার স্বামী মঈন হাসান চঞ্চল, বৃন্দাবন দাস ও শাহনাজ খুশী।

এ প্রসঙ্গে চঞ্চল চৌধুরী বলেন, ‘এটা একটা ঘরোয়া আড্ডা। আমরা প্রায়ই এমন আড্ডা দেই। কাজের একঘেয়েমি আর নাগরিক ব্যস্ততা থেকে একটু ফুসরত পেলেই আড্ডা জমে ওঠে। কখনো বৃন্দাবন দাসের বাড়িতে। কখনো মমতাজের বাসায়। এটা তেমনই এক আড্ডার ছবি।’

অন্যদিকে শাহনাজ খুশী বলেন, ‘ঈদের পরদিনের ছবি এটা। মমতাজ আপা ঈদের দিন ঢাকা ছিলেন না। ঢাকা ফিরেই ফোন দিলেন। বললেন, খুশী হয় আমার বাসায় চলে আসো, নয়তো তোমার বাসায় আমরা আসি। আমরা সবাই তখন তিনশ ফিট এলাকায় ছিলাম। সবাই চলে গেলাম মমতাজ আপার বাসায়। জমজমাট আড্ডা হলো। গান হলো। খাওয়া দাওয়া হলো। ছবি তোলা তো হলোই।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমরা একটু ফুসরত পেলেই আড্ডায় বসে যাই। কখনো আমার বাসায়, কখনো মমতাজ আপার বাসায়। চঞ্চল চৌধুরী থাকে। মমতাজ আপার পরিবার, মেয়েরা থাকে। আমার ছেলেরা থাকে। মমতাজ আপার গানের পরিবার থাকে। সব মিলিয়ে চমৎকার পারিবারিক আড্ডা হয়। আমার বাসায় আড্ডা হলে আমি নিজে রান্না করে সবাইকে খাওয়াই।’

শাহনাজ খুশী আড্ডার স্মৃতি যোগ করে বললেন, ‘এর আগে মমতাজ আপার সঙ্গে কাতার গিয়েছিলাম একটা অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠান শেষ করে আমরা মমতাজ আপার রুমে আড্ডায় বসে যাই। আপা ডুগডুগি হাতে নিয়ে সারারাত গান গাইলেন। আমাদের আড্ডা শেষ হতে হতে সকাল হয়ে যায়। মমতাজ আপার যেমন বিরাম নেই গান গাওয়ায়, তেমনি আমাদের আগ্রহের শেষ নেই গান শোনায়।’

Advertisement

কমেন্টস