এফডিসিতে মধ্যরাতে মাতলামি নিয়ে মুখ খুললেন শাকিব

প্রকাশঃ মে ৬, ২০১৭

বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

গতকাল সম্পাদিত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ঘিরে ৬ই মে মধ্যরাতে এফডিসিতে ঘটে অনাকাঙ্ক্ষিত এক ঘটনা। মদ্যপ অবস্থায় শাকিব খান বিএফডিসিতে ঢুকের পড়েন এবং এরপর তাকে ধাওয়া করা হয় ভোট প্রভাবিত হতে পারে এমন আশঙ্কায়। এই নিয়ে এবার নিজেই কথা বললেন ঢালিউড সুপারস্টার শাকিব খান।

মূল ঘটনা হলো, ৬ই মে মধ্যরাতে বিএফডিসিতে হঠাৎ করেই আনুমানিক মধ্যরাত ২ টার সময় বিএফডিসির ভোটকেন্দ্রে হাজির হন নায়ক শাকিব খান। ভোট গণনাকক্ষে প্রবেশ অনুমতি না থাকলেও তিনি পেছনের ছোট ফটক দিয়ে বাঁধা বিপত্তি না মেনে সোজা ঢুকে পড়েন গণনাকক্ষে। মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন তখন শাকিব খান। ওই সময় তিনি একটু মাতলামিও করছিলেন বলেও শোনা যায়।

এরপর গণনাকক্ষ থেকে বের হওয়ার পর প্রার্থীর সমর্থকরা তাকে ধাওয়া করে। একপর্যায়ে কিছু লোক শাকিবকে তাড়া করতে শুরু করেন।  শাকিব খানবিরোধী কয়েকজন শিল্পী ও কলাকুশলীরাও সেখানে ছিলেন। তর্কাতর্কির এক পর্যায়ে হাতাহাতিতে রূপ নেয়। কেউ কেউ শাকিব খানকে মদ্যপ বলে গালাগালও করেন। এরপর সভাপতি প্রার্থী মিশা সওদাগর  পরিস্থিতি সামাল দিতে শাকিবকে সুরক্ষা দিয়ে গাড়িতে পৌছে দেন। এমনকি শাকিবের গাড়িতে হামলা হয় বলে জানা যায়।

হঠাৎ কেন শাকিব খান ভোট গণনা কক্ষে প্রবেশ করতে চাইলেন? হঠাৎ করে তার উপর কেন এমন হামলা হলো? কেনই বা এমন পরিস্থিতিতে পড়তে হলো শাকিবকে?

এ বিষয়ে শাকিব খান এবার মুখ খুলেছেন, ‘আমার কাছে বেশ কয়েকজন প্রার্থী ও সাধারণ সদস্য ভেতরে কারচুপির অভিযোগ করেন। পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে ভোট গণনা হচ্ছে, বিষয়টি শুনে আমারও বেশ খটকা লাগে।’

তিনি আরো বলেন, ‘এটা জাতীয় পর্যায়ের কোনো নির্বাচন নয়। সাধারণ একটি সামাজিক সংগঠনের নির্বাচন। তাহলে কেন পুলিশ প্রশাসনের উপস্থিতিতে ভোট গুণতে হবে? এটা দেখতেই আমি ভেতরে প্রবেশ করতে চেয়েছি।’

শাকিব বলেন, ‘সমিতির ক্ষমতা বুঝিয়ে দেয়ার আগ পর্যন্ত, অর্থাৎ বর্তমান নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ শপথ নেয়ার আগ পর্যন্ত আমি সমিতির সভাপতি। এ দায়িত্বে থেকে আমি কোনো অভিযোগ পেলে সেটা খতিয়ে দেখতে ভেতরে যেতেই পারি। কিন্তু আমাকে সেটা করতে না দিয়ে উল্টো আমার ওপর হামলা করা হল।’

কেন এমনটা হয়েছেন বলে তিনি মনে করেন এমন প্রশ্নের উত্তরে নায়ক বলেন, ‘মনে হচ্ছে, পরিকল্পিতভাবেই সবকিছু করা হয়েছে। চলচ্চিত্রেও পেশীশক্তির ব্যবহার করে নির্বাচন হবে, এটা মোটেও আশা করিনি। দিনশেষে আমরা একই পরিবারের সদস্য। এটা কেন অন্যরা বুঝেন না বা বুঝতে চান না, তা বোধগম্য নয়। আশা করি সবাই নিজেদের ভুল বুঝে কাজে মনোযোগ দেবেন। তবে ভবিষ্যতে এ রকম ঘটনা যাতে না ঘটে সেটার প্রতিও সবার লক্ষ্য রাখতে হবে।’

কমেন্টস