কালো ছেলে আমার কপালে নেইঃ মাহিয়া মাহি

প্রকাশঃ মে ২৬, ২০১৬

রাজধানীর উত্তরার ভিনিভিডিভিসি রেস্টুরেন্টে বাজছে সানাইয়ের সুর। ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী মাহিয়া মাহির নতুন জীবনে পদার্পণের বার্তা জানান দিচ্ছে সে সুরের আওয়াজ। হঠাৎ করেই বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন নায়িকা। পাত্র সিলেটের ব্যবসায়ী মাহমুদ পারভেজ অপু । পর্দায় বহুবার বউ রূপে দেখা গেলেও সেই মুহূর্তে এক অন্যরূপী মাহিকে দেখেছে সবাই। লাল টুকটুকে শাড়িতে মাহির রূপ সকলের নজর কেড়েছে। চার বছর ধরে একে অপরকে চিনলেও বিয়েটা করছেন পরিবারের পছন্দেই। বিয়ের আসরে বরকে পাশে নিয়ে বিডিমর্নিংকে দেয়া এক বিশেষ সাক্ষাৎকার তাকে ঘিরে সকল রহস্যের জট খুলে দিলেন মাহি। কথা বলেছেন নিয়াজ শুভ-

হঠাৎ করে বিয়ের সিদ্ধান্ত কেন?

মাহিঃ পরিবারের ইচ্ছাতেই বিয়েটা করেছি। আমার ইচ্ছা ছিলো যখন আমার ক্যারিয়ার খুব ভালো থাকবে আমি তখনই বিয়েটা করবো। কারণ ক্যারিয়ার যখন ডাউন হয়ে যায়, তখন বিয়ে করলে অনেকেই ভাবতে পারে ক্যারিয়ার খারাপ যাচ্ছে তাই বিয়ে করে সংসারী হয়ে যাচ্ছি। কাউকে এমনটা ভাবার সুযোগ দিবো না বলেই বিয়েটা সেরে ফেললাম।

আপনার তো কালো ছেলে পছন্দ তাহলে ফর্সা স্বামী কেন?

মাহিঃ কালো ছেলে আমার কপালে নেই। বরাবরই ইচ্ছা ছিলো কালো ছেলেকে বিয়ে করবো। কিন্তু আল্লাহ্‌ ভাগ্যে ফর্সা ছেলে রেখেছে।

আপনাদের প্রথম দেখা কোথায়?

মাহিঃ সিলেটে। চার বছর আগে ঘুরতে গিয়ে পরিচয়।

অপুর (মাহির স্বামী) কোন বিষয়টি আপনার ভালো লেগেছে?

মাহিঃ ও (অপু) খুবই শান্ত এবং বোকা (হাসি)। আমি চেয়েছিলাম এমন একজনই আমার জীবনসঙ্গী হোক।

বিয়ের পর শ্বশুর বাড়ি থেকে কাজের ক্ষেত্রে কোন বাঁধা…

মাহিঃ আপাতত নেই। আমার শ্বশুর-শাশুড়ি যথেষ্ট স্মার্ট। উনারা আমার কাজকে সাপোর্ট করেন। আর অপুর (মাহির স্বামী) সাথেও আমার এ বিষয়ে কথা হয়েছে। ওর কোন আপত্তি নেই। আমি আমার ইচ্ছামত কাজ করে যেতে পারবো।

বিয়ের প্রস্তুতি কেমন ছিলো?

মাহিঃ আসলে আমি তেমন সময়ই পায়নি। মাত্র এক সপ্তাহ আগে আমাদের বিয়ের কথা পাকা হয়। মনের মতো শপিং করারও সময় হয়ে উঠে নি।

শ্বশুরবাড়ি কবে যাচ্ছেন?

মাহিঃ জুলাইয়ে যাবো। আগামী ২৪ জুলাই সিলেটে বিবাহোত্তর সংবর্ধনার আয়োজন করা হবে।

চলচ্চিত্রের কাজ কমিয়ে দিবেন?

মাহিঃ হ্যাঁ। আমি খুব বেছে বেছে বছরে ২/৩ টি ছবিতে কাজ করি। তবে এখন থেকে ১টি ছবিতে কাজ করবো। ভালো মানের একটি ছবিই যথেষ্ট। আশা করি দর্শকরা সেটিই গ্রহণ করবেন। এখন পরিবারকে কিছুটা সময় দিবো। অভিনয়ের পাশাপাশি আমি সংসারটাও মন দিয়ে করতে চাই।

বিয়ের পর নায়িকাদের জনপ্রিয়তা কমে যায়, আপনার ক্ষেত্রে কি হবে বলে মনে করেন?

মাহিঃ আসলে আমি আজ যত দূর এসেছি সম্পূর্ণ আমার ভক্তদের ভালোবাসায়। আমি চেষ্টা করবো আমার কাজ বিয়ে তাদের এই ভালোবাসা ধরে রাখতে। আমি আমার ভাগ্যে বিশ্বাসী। দেখা যাক ভাগ্য আমাকে কতদূর নিয়ে যায়।

বিয়ের পর নিজের মধ্যে কি কোন পরিবর্তন লক্ষ্য করতে পারছেন?

মাহিঃ ওর (অপু) সঙ্গে পরিচয় হওয়ার পর থেকেই আমার সবকিছু ভালো যাচ্ছে। আগে একা একা ইন্টারভিউ দিতাম এখন ও আমার পাশে বসে আছে। ব্যাপারটি অন্যরকম এক অনুভূতি দিচ্ছে। এছাড়া আমার বিয়ের খবর জানার পর অনেকেই ফেসবুক ইনবক্সে বলছেন ‘যা রে যাবি যদি যা’।

হানিমুনে কোথায় যাচ্ছেন?

মাহিঃ এখনো ঠিক হয়নি। পরে আলোচনা সাপেক্ষে ঠিক করবো। তবে সিলেট আমার খুব পছন্দের জায়গা (হাসি)।

শুটিংয়ে ফিরছেন কবে?

মাহিঃ আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে একটি ছবির শুটিং শুরু করছি। ছবির জন্য যে শিডিউল যেভাবে দেওয়া আছে, আমি সেভাবেই শুটিং করব। আমি অভিনয়ের বিষয়ে সব সময়ই সিরিয়াস।

ভক্তদের উদ্দেশ্যে কিছু বলবেন?

মাহিঃ জানিনা আমার ছেলে ভক্তরা এখন সিনেমা হলে যাবে কিনা? তাদের উদ্দেশ্য করে বলছি আপনারা অবশ্যই আমার ছবি দেখতে যাবেন। সকলেই আমাদের জন্য দোয়া করবেন আমরা যেন আমাদের দাম্পত্য জীবনে সুখী হতে পারি।

কমেন্টস