‘আইপজিটিভ’ এর পর্ণোগ্রাফি ও  মাদক বিরোধী সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ নভেম্বর ১৪, ২০১৭

আবু সালেহ শামীম, ইবি প্রতিনিধি:

“সে নো টু পোর্ণ, সে নো টু ড্রাগস” এই শ্লোগানে ঠাকুরগাঁও পীরগঞ্জের সমাজসেবামূলক সংগঠন ‘পর্ণোগ্রাফি বিরোধী’ এক সেমিনারের আয়োজন করে।

সোমবার (১৩ নভেম্বর) সকাল ১১ টায় “পর্ণোগ্রাফি বিরোধী সেমিনার-২০১৭” নামে সেমিনারটি পীরগঞ্জ পাইলট স্কুলে অনুষ্ঠিত হয়। সেমিনারে বক্তারা পর্ণোগ্রাফির কুফল ও ক্ষতিকারক দিকগুলো তুলে ধরে।

সেমিনারে আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেডিকেলের তাইবুর মাসুদ এ্যালবার্ট, বুয়েটের তানভীর আজিজ দুর্বার , আইপজিটিভ’র প্রতিষ্ঠাতা শফিক পারভেজ পরাগ ।

আলোচকরা বলেন, পর্ণো ভয়াবহ একটি স্লো পয়জন যা বর্তমান সমাজের যুবসমাজকে শারীরিক, মানসিক এবং সামাজিকভাবে তিলে তিলে শেষ করে দিচ্ছে। পর্ণো ও পর্ণোগ্রাফি মাদক এর মতই ভয়ংকর। ড্রাগস থেকে মুক্তি পাওয়া কঠিন পর্ণো আসক্ত থেকে মুক্তি পাওয়াও তেমনি কঠিন এবং দুরূহ পাওয়ার।পর্ণো আসক্তির কারণে পরিবারের সাথে সম্পর্ক খারাপ হয়। পড়াশোনায় মনোযোগ বসেনা, নিজের প্রতি হীনমন্যতা তৈরি হয়। তাছাড়া রুচিশীল বন্ধুবান্ধবদের কাছে এটার জন্য হেয় হতে হয়।

বক্তারা আরও বলেন, পর্ণো স্মরনশক্তি কমায়, ডিপ্রেশন তৈরি করে ,সামাজিক মূল্যবোধ হারাচ্ছে, সৃষ্টিশীলতা, সৃজনশীলতা ধ্বংস হচ্ছে, সারাক্ষণই যৌনতা ঘুরছে অল্পবয়সী না বুঝে ওঠা ছেলে মেয়েদের মধ্যে।  বাঁধন হারাচ্ছে সবকিছুর। সামাজিক মূল্যবোধ হারাচ্ছে। নারী হলেই হলো, সম্পর্ক দেখছে না,  ছাত্রী, পাড়ার বোন, ভাবি- বাদ যাচ্ছে না কিছুই।এমনকি রেহাই পাচ্ছে না ছোটো ছোটো শিশু।  সবার দিকেই লোলুপ দৃষ্টি, সামাজিক অবনমন হয়েই চলেছে দিনকে দিন, তারা পর্ণোগ্রাফি নামক মাদকের ছোবল থেকে তরুণ ও যুবসমাজকে বের হয়ে জনকল্যাণমূলক কাজে অংশগ্রহণের আহ্বান জানান বক্তারা।

আইপজিটিভ এর প্রতিষ্ঠাতা শফিক পারভেজ পরাগ প্রতিবেদককে বলেন  ‘তথ্য প্রযুক্তির অবাধ স্বাধীনতায় যুব সমাজকে পর্ণোগ্রাফির ভয়াল থাবা থেকে রক্ষা করতে সচেতনতা বাড়াতে আমাদের এই  আয়োজন।’

এই বিষয়ে আইপজিটিভ এর সভাপতি আলিউল অর্ণব বলেন, ‘পীরগঞ্জকে আমরা বাংলাদেশের আদর্শ উপজেলা গড়ে তুলতে চাই, তার জন্য আমাদের সর্বপ্রথম যুব ও তরুণ সমাজকে সকল প্রকার মাদক  ও অন্যায় কাজ থেকে বিরত রাখতে হবে। তারই ধারাবাহিকতায় আমাদের এই পর্ণোগ্রাফি বিরোধী সেমিনার।’

তিনি বলেন, ‘বর্তমান স্কুল পড়ুয়া তরুণ ছাত্ররা পর্ণোগ্রাফির প্রতি  ব্যাপক হারে ঝুকে পরছে, যা তাদের মধ্যে ইভটিজিং ও ধর্ষণে  মত গুরুতর অপরাধ এর প্রবণতা বাড়াচ্ছে। তারা অনৈতিক ও অবৈধ শারীরিক সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ছে। আমাদের স্কুল পড়ুয়া শিক্ষার্থী, যুব ও তরুণ সমাজকে এই আসক্তির ভয়াল থাবা থেকে বের করে নিয়ে আসতেই এবং তাদের মাঝে সচেতনতা বাড়াতেই আমরা এই সেমিনার আয়োজন করছি।’

উল্লেখ্য, প্রতিষ্ঠার পর থেকে সামাজিক উন্নয়নমূলক  ও নানামুখী সমাজসেবামূলক কার্যক্রমের জন্য পীরগঞ্জ উপজেলার এই সংগঠনটি জয় বাংলা এ্যাওয়ার্ড পেয়েছে ।

কমেন্টস