ফুটপাতের অবৈধ দোকানে পুলিশের চাঁদা আদায়

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৭

শেকৃবি প্রতিনিধিঃ

রাজধানীর রাস্তাগুলো খানাখন্দের কারণে চলাচলের প্রায় অচল। ভোগান্তির যেন শেষ নেই। তাতে বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে রাস্তার পাশের ফুটপাতে গড়ে ওঠা অবৈধ দোকানপাট। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের কলেজগেটে ফুটপাতে অবৈধভাবে গড়ে উঠেছে প্রায় ৫০টি দোকান। প্লাস্টিকের ছাউনিতে তৈরি এসব দোকান এবছরে শুরুতে উচ্ছেদ করলেও কয়েক মাস পর আবার স্থাপন করা হয়েছে বলে জানান স্থানীয়রা।

এই এলাকায় শেরেবাংলা কৃষি  বিশ্ববিদ্যালয়, কৃষি প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট, সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট, জাতীয় কিডনি হাসপাতাল, জাতীয় মানসিক হাসপাতালসহ বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান রয়েছে। ফলে সঙ্গত কারণেই এই এলাকায় লোক চলাচল বেশি। ফুটপাতের এসব দোকানপাটের কারনে প্রতিনিয়ত চলাচলে সমস্যার সম্মুখীন হতে হচ্ছে পথচারীদের। মাঝেমধ্যেই ঘটছে দুর্ঘটনা।

স্থানীয় এক পথচারী বলেন, ফুটপাত খালি না থাকায় মেইন রাস্তা দিয়ে হাঁটতে হয়। দুর্ঘটনার ভয় নিয়ে চলাফেরা করি আমরা।  

সেখানকার এক দোকানি বলেন, আমরা গরীব মানুষ। পেটের ভাত জুটানোর জন্যই আমরা আবার দোকান বসিয়েছি। কার অনুমতি নিয়ে পুনরায় দোকান চালু করা হয়েছে জানতে চাইলে তা জানাতে চাননি দোকানিরা। তবে পাহাড়া দেওয়ার কারনে প্রতিদিন ৫০ টাকা করে পুলিশকে দিতে হয় বলে জানিয়েছেন একাধিক দোকানি।

নূর ইসলাম নামে এক দোকানি বিকল্প ব্যবস্থা হিসেবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে ‘মিনি বাজার’ নির্মাণ করার পরামর্শ দিয়েছেন।

এ বিষয়ে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের ২৭ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ইরান বিডিমর্নিংকে  বলেন, আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের সাথে কথা বলবো। পর্যাপ্ত জায়গা না থাকায় বাজার নির্মাণে সমস্যা দেখা দিতে পারে।

শেরেবাংলা নগর থানার ওসি গনেশ গোপাল বিশ্বাস বলেন,  আমরা আগেও ফুটপাতের দোকানগুলো তুলে দিয়েছিলাম। আবার দোকান বসানো হয়েছে। আমরা দ্রুত এসব অবৈধ দোকান তুলে দিবো। তার এলাকায় ফুটপাতে কোন দোকান থাকবে না বলেও তিনি ঘোষণা করেন তিনি।  

Advertisement

কমেন্টস