অসচেতনভাবে মোবাইল ফোন ব্যবহারই সড়ক দুর্ঘটনার অন্যতম কারণ

প্রকাশঃ জুন ৮, ২০১৮

সাইফুল ইসলাম, নরসিংদী প্রতিনিধিঃ

“একটি দুর্ঘটনা, সারা জীবনের কান্না। সময়ের চেয়ে জীবনের মূল্য অনেক বেশি। সতর্ক হয়ে চলাচল করুণ। গাড়ি চালাতে সাবধানতা অবলম্বন করুন। সাবধানে রাস্তা পারাপার হোন।” মোবাইল ফোন ব্যবহারের কারণে এসব সতর্কবাণীগুলো বাণীই হয়ে থাকছে, কেউ মানছে না।

বাস-ট্রাক-মাইক্রোবাস-অটোরিকশার চালকদের গাড়ি চালানোর সময় মোবাইল ফোনে কথা বলতে দেখা যায়। অথচ চলন্ত অবস্থায় মোবাইল ফোন ব্যবহারের সময় চালক প্রায় অসতর্ক অবস্থায় থাকে। একইভাবে মোটরসাইকেল চালকদের মোবাইল ফোনে আলাপরত অবস্থায় কাত হয়ে বা মাথা ঝুঁকে অমনোযোগী হয়ে চলাচল করতে দেখা যায়। আবার মোবাইল ফোনে কথা বলতে বলতে রাস্তায় চলাচল ও রাস্তা পারাপার হওয়া এখন ফ্যাশনে পরিণত হয়েছে।

নরসিংদীর সড়ক মহাসড়কে একটু লক্ষ করলেই এসব দৃশ্য চোখে পড়বে। এ কারণে সাধারণ মানুষ একটু অসতর্ক হলেই সর্বনাশ হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এর ফলে নরসিংদীতে সম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনার সংখ্যা বেড়ে গেছে। ঝড়ে যাচ্ছে মূল্যবান প্রাণ। বহু মানুষ আহত ও পঙ্গু হচ্ছে।

এমনই সম্প্রীতি নরসিংদীর একটি ঘটনা হচ্ছে নরসিংদীর চিনিশপুরে রফিকুল ইসলাম, পিতা- আলমগীর, গ্রাম- উত্তরশীলমান্দি, ০৩ নং ওয়ার্ড, দড়ি পাড়া নামে কলেজে ১ম বর্ষে পড়ুয়া ছাত্র অসতর্ক ভাবে কানে হেডফোন লাগিয়ে ট্রেনের রাস্তা দিয়া মোবাইল ফোনের মাধ্যমে গান শুনতে শুনতে কলেজ থেকে বাড়ি যাচ্ছিল। কিন্তু তার একটু অসচেতনতার কারণে সে ট্রেনে কাটা পড়ে এবং ঘটনাস্থলে সে ৩টি টুকরা হয়ে যায়। তার আর বাড়ি ফেরা হলো না। এরকম আরো অনেক ঘটনা নরসিংদীতে প্রতিনিয়ত ঘটছে।

এ ক্ষেত্রে আইনের প্রয়োগ হতে দেখা যাচ্ছে না। আইন মানার প্রবণতা কারো মধ্যে লক্ষ করা যায় না। আবার চলন্ত অবস্থায় চালকের মোবাইল ফোন ব্যবহারের বিরুদ্ধে আইন থাকলে তার প্রয়োগ নেই। শুধু দুর্ঘটনা ঘটলে আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো তৎপর হতে দেখা যায়। কিন্তু অন্য সময় তাদের যেন কোনো কর্তব্য নেই।

নরসিংদীর বিশেষজ্ঞদের মতে, চলাচলের পথে এবং চলন্ত যানবাহনে মোবাইল ফোন ব্যবহারের সতর্কতা অবলম্বনে চালক ও যাত্রীদের অধিক সতর্ক হওয়া প্রয়োজন। এ ক্ষেত্রে আইনের কঠোর প্রয়োগের পাশাপাশি সচেতনতা বাড়াতে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলা প্রয়োজন। সরকারের পাশাপাশি মোবাইল ও সেল কোম্পানিগুলোর সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধিতে ভূমিকা থাকা প্রয়োজন। তাদের মতে, নরসিংদীতে সম্প্রতি যেসব বড় দুর্ঘটনা ঘটছে তার প্রধান কারণও এই মোবাইল ফোনের ব্যবহার।

এ বিষয়ে নরসিংদী সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ মোহাম্মদ আলী বলেন, চলন্ত অবস্থায় যানবাহন চালককে মোবাইল ফোন ব্যবহার করা অবস্থায় তাদের সচেতন করা উচিত। অনেক সময় চালকেরা যেখানে পুলিশ থাকে না সেখানে এটি করে থাকে। তবে চলন্ত যানবহনের চালকদের মোবাইল ফোন ব্যবহার নিষিদ্ধ আইন আরো জোরধার করা উচিত।

কমেন্টস