‘অপ্রয়োজনে সিজার করলেই হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা’

প্রকাশঃ এপ্রিল ৭, ২০১৮

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

অপ্রয়োজনে সিজারিয়ান ডেলিভারি (অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শিশুর জন্ম) করালে হাসপাতালের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে সরকার।সিজারিয়ান ডেলিভারির ক্ষেত্রে এখন থেকে হাসপাতালগুলোকে একটি ফরম পূরণ করতে হবে জানিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল কালাম আজাদ।

বিশ্বস্বাস্থ্য দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ ম্যাটারনাল মরটালিটি অ্যান্ড হেলথ কেয়ার সার্ভের (বিএমএমএস) প্রাথমিক ফলাফল অনুযায়ী বাংলাদেশে মাতৃমৃত্যুর হার বেড়েছে। সমীক্ষা অনুযায়ী, ২০১৬ সালে প্রতি এক লাখ জীবন্ত শিশু জন্মের ক্ষেত্রে মৃত্যু হয়েছে ১৯৬ জন মায়ের। ২০১০ সালে এই সংখ্যা ছিল ১৯৪।

এ বিষয়ে মহাপরিচালক বলেন, ‘মাতৃমৃত্যুর হার নিয়ে আমাদের প্রশ্ন আছে। আমরা ওই রিপোর্টের সাথে এখনও একমত হতে পারিনি। কারণ আমাদের যে রুটিন হেলথ ইনফরমেশন ডাটা যেখানে থেকে আসে আমরা সেটাকে বিশ্বাস করতে পারি। আমাদের ডাটা অনুসারে এটা ১৬৮ থেকে ১৭০ এর মতো হতে পারে। এটা নিয়ে কাজ করছি, দ্বিতীয়ভাবে আবার দেখছি, এটা আসলে কতটুকু সঠিক। কাজেই আমরা স্বীকার করতে রাজি নই মাতৃমৃত্যুর হার বাংলাদেশে বেড়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা স্বীকার করি বাংলাদেশে সিজারিয়ান অনেক বেড়ে গেছে। এটা যাতে না হয়, যেখানে সিজারিয়ান করার প্রয়োজন নেই, সেখানে যাতে সিজারিয়ান করা না হয়, সেজন্য স্বাস্থ্য অধিদফতরের পক্ষ থেকে একটি বিশেষ ফরম করেছি। যেখানে সিজারিয়ান হবে প্রত্যেকটা ক্ষেত্রে ফরম পূরণ করে আমাদের জানাতে হবে। আমারা এগুলো চেক করব। তারা যে তথ্য আমাদের জানাচ্ছে তা সঠিক কি না। সেক্ষেত্রে যারা বিনা প্রয়োজনে সিজারিয়ান করাবে, সেখানে যে ধরনের ব্যবস্থা নেয়া দরকার সে ধরনের আমরা ব্যবস্থা নেব। ফরমে মোবাইল নম্বরও নেয়া হবে।’

কমেন্টস