Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ বুধবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

ছাত্রলীগ নেতা শাওনের হত্যাকারীদের বিচারের দাবিতে বিক্ষোভ

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ১২ মার্চ ২০১৮, ০৯:৩০ PM আপডেট: ১২ মার্চ ২০১৮, ০৯:৩০ PM

bdmorning Image Preview


ময়মনসিংহ প্রতিনিধিঃ

ময়মনসিংহে সাবেক জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি আশফাক আলরাফী শাওন হত্যার বিচার দাবিতে মানব্বন্ধনের পর এবার জোর আন্দোলন শুরু করেছে নগরবাসী ও শাওনের সহপাঠিরা।

সোমবার (১২ মার্চ ) দুপুরে ময়মনসিংহ নগরবাসীর উদ্যোগে নগরীর রেলওয়ে চত্বর থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের হয়ে গাঙ্গিনাপাড় মোড়ে এসে ২ ঘন্টাব্যাপী নগরীর প্রধান সড়ক অবরোধ করে শান্তিপূর্ণ অবস্থান কর্মসূচি পালন করে তারা। পরে নতুন বাজার মোড় হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে টাউন হল চত্বর গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ করেন তারা।

এ সময় বিক্ষোভ আনন্দোলনে ছাত্রলীগ নেতা শাওনের বড় বোন ফাইজা ইসরাত ফ্লোরাসহ সহপাঠি, কলেজ ও স্কুল বয়সি শিশু কিশোররাও অংশগ্রহণ করেন। পরে সমাবেশে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বক্তরা শাওন হত্যার রহস্য উদঘাটনে সুষ্ঠ তদন্ত দাবি করেন। তবে গুলিবিদ্ধ হওয়ার ১৬ দিন পরেও এই ঘটনায় নিরববতা চললেও গত দুইদিন যাবত ধরে ময়মনসিংহের রাজপথে নামেছে প্রতিবাদকারীরা।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (৮ মার্চ) দুপুরে ঢাকার ধানমন্ডিতে ইবনে সিনা হাসপাতালে ময়মনসিংহ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি গুলিবিদ্ধ আশফাক আলরাফী শাওন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা মৃত্যুবরণ করেন। তিনি দীর্ঘ ১২ দিন জীবনের সঙ্গে যুদ্ধ করে না ফেরার দেশে চলে যান।

এদিকে শাওনের মরদেহ ওইদিন বিকেলে ময়মনসিংহ নগরী আকুয়ার নিজ বাড়িতে আনা হয়। পরদিন তার গ্রামের বাড়ি ফুলবাড়ীয়া উপজেলা লক্ষীপুর এলাকায় পারিবারি কবরস্থানে শাওনকে সমাহিত করা হয়।

উল্লেখ্য, ২৫ ফেব্রুয়ারি মধ্যরাতে ময়মনসিংহ নগরীর জেলা পরিষদের সামনের এলাকায় জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি আশফাক আলরাফী শাওন রহস্যজনকভাবে গুলিবিদ্ধ হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালে ভর্তি করেছে। এসময় তার অবস্থার অবনতি হলে চিকিৎসকরা শাওনকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠান। শাওন আকুয়া চৌরঙ্গীর মোড় এলাকার বাসিন্দা এবং সাবেক জেলা আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক এম এ কদ্দুসের ছেলে।

কোতুয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মাহমুদুল হাসান জানান, রাত ২টার দিকে নগরীর জেলা পরিষদের সামনে কয়েকজন বন্ধু মিলে দাঁড়িয়ে ছিলেন শাওন। এ সময় তিনি রহস্যজনকভাবে গুলিবিদ্ধ হয়। তখন স্থানীয়রা খোঁজ পেয়ে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মমেক হাসপাতালে ভর্তি করেন।

পরে চিকিৎসকরা তার অবস্থা আশঙ্কাজনক দেখে মমেক হাসপাতালের আইসিইউতে রেফার্ড করে। তবে কীভাবে তিনি গুলিবিদ্ধ হয়েছেন তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে বলেও জানান ওসি।

Bootstrap Image Preview