মাদারীপুরে ৬ বছরের শিশুকে ধর্ষণ করলো স্কুলশিক্ষক

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ১২, ২০১৮

ক্রাইম ডেস্ক।।

মাদারীপুরে অবসরপ্রাপ্ত এক স্কুলশিক্ষকের বিরুদ্ধে ছয় বছরের শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেন। তাকে আটক করতে অভিযানে নেমেছে পুলিশ।

আজ সোমবার সকালে জেলার শিবচর উপজেলার এ ঘটনা ঘটে। শিশুটিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

অভিযুক্ত নির্মল গুহ (৬০) স্থানীয় একটি উচ্চবিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক।

জানা গেছে, আজ সকালে শিশুটিকে বিস্কুটের লোভ দেখিয়ে বাড়ির পাশের একটি বাগানে নিয়ে যান নির্মল। পরে তাকে ভয় দেখিয়ে ধর্ষণ করেন। এ সময় শিশুটির চিৎকারে বাগানের পাশে খেলতে থাকা অন্য শিশুরা বিষয়টি টের পেয়ে স্থানীয় লোকজনদের জানায়। স্থানীয় লোকজন শিশুটিকে উদ্ধারে ছুটে এলে ওই ব্যক্তি পালিয়ে যান। পরে শিশুটিকে শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

শিশুটির মা অভিযোগ করে বলেন, ‘আমার মাইয়াডারে বিস্কুটের লোভ দেখাইয়া নির্যাতন করে নির্মল। আমার নিষ্পাপ মাইয়া ওর কী ক্ষতিহান করছিল।’ শিশুটির বাবা বলেন, ‘দিনমজুরি কইরা যা পাই, তা দিয়া সংসার চালাই। মাইডারে নিয়া এহন হাসপাতালে আইছি। ডাক্তারের এহনো পরিষ্কার কইরা কিছু বলে না। ভয়ের মধ্যে আছি। ঘটনার পর হাসপাতালে পুলিশ আসছিল। তাদের কাছে অভিযোগ করেছি।’

সহকারী পুলিশ সুপার (শিবচর সার্কেল) আনোয়ার হোসেন ভূইঞা প্রথম আলোকে বলেন, ‘আমরা ঘটনাস্থল ও হাসপাতাল পরিদর্শন করেছি। আমাদের ধারণা, মেয়েটিকে ধর্ষণের চেষ্টা করা হয়েছিল। তাই সুস্পষ্ট তথ্য নিতে ফরেনসিক রিপোর্টের জন্য শিশুটিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। শিশুটির পরিবারের পক্ষ থেকে আমাদের কাছে লিখিত অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। শিবচর থানায় এ বিষয়ে মামলা প্রক্রিয়াধীন। ইতিমধ্যে অভিযুক্তকে আটক করতে মাঠে নেমেছে পুলিশ।’

শিবচর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক আবু জাফর বলেন, ‘সকালে শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। আমরা শিশুটিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়েছি। শিশুটি বেশ ছোট। ধর্ষণ হয়েছে কি না, তা পরীক্ষা না করে বোঝা যাবে না। ফরেনসিক রিপোর্টের জন্য আমরা শিশুটিকে মাদারীপুর সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছি।’

অভিযুক্ত নির্মল গুহর সঙ্গে মুঠোফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে, নির্মল গুহর এক প্রতিবেশী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, তাকে সকাল থেকেই দেখি না। তার ঘরের লোকেরাও নেই। লোকমুখে শুনেছি, নির্মল নাকি ওই মেয়েকে ধর্ষণ করে পালিয়েছেন। আমরা তার বিচার চাই।’

কমেন্টস