রংপুরে ৪০ দিনে শিশুসহ অগ্নিদগ্ধ মা

প্রকাশঃ জানুয়ারি ১৪, ২০১৮

বিডিমর্নিং ডেস্ক:

রংপুরে ৪০ দিনের শিশুকে নিয়ে আগুন পোহাতে গিয়ে দগ্ধ হওয়া ঘটেনা ঘটেছে মা ওশিশুর। শিশুটিকে কোলে করে আগুনের কুণ্ডলীর কাছে গিয়েছিলেন মা। বেখেয়ালে সে আগুন কাপড়ে ধরে যায়। বুঝে ওঠার আগেই পুড়ে যান নিজে, পুড়ে যায় শিশুটি।

রেকর্ড ভাঙা শীতের কবল থেকে বাঁচতে খড়-কুটোর আগুনই ভরসা উত্তর জনপদের লাখো অভাবী মানুষের। একটুখানি উষ্ণতার আশায় বরফ-শীতল শরীর আগুনে পাততে গিয়েই পুড়ছে এবং মরছে অনেকে।

দগ্ধ মানুষের চিকিৎসার একমাত্র ভরসা রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বিশেষায়িত বার্ণ ইউনিট। যার শয্যা সংখ্যা ১৩। কিন্তু গত দুই সপ্তাহে গড় ভর্তি রোগীর সংখ্যা ৫৫। স্বল্প-জনবল তারপর বিভাগীয় প্রধানের টানা দশ দিনের অনুপস্থিতি সংকটে ফেলেছে দগ্ধ মানুষের চিকিৎসা সেবা।

রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট ফোরকান আলী বলেন, আমাদের সকল ডিউটির পরেও আরো একজনকে ডেকে এনে ড্রেসিং এর ব্যবস্থা করেছি। আর বিভাগীয় প্রধান দশ দিনের ছুটিতে ভারতে গেছেন। এতে একটু সমস্যা হচ্ছে।

উত্তরের রংপুরসহ ওই অঞ্চলে এবার পড়েছে রেকর্ড ভাঙা শীত। আর তা থেকে বাঁচতে আগুন পোহাতে গিয়ে মানুষের দগ্ধ হওয়ার ঘটনা ঘটছে প্রতিদিন।

কমেন্টস