বঙ্গবন্ধুর ছবি ও জয় বাংলা শ্লোগান না রাখায় মেয়রকে ধাওয়া

প্রকাশঃ ডিসেম্বর ১৬, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

ময়মনসিংহের মুক্তাগাছায় মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে বিজয় মঞ্চের ব্যানারে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ও জয় বাংলা শ্লোগান না রাখায় মঞ্চ ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে। এসময় বিএনপি নেতা পৌর মেয়র কর্তৃক ঔদ্ধত্যপূর্ণ মন্তব্যের প্রতিবাদে পৌর মেয়রকে ধাওয়া করার ঘটনা ঘটেছে।

শনিবার সকালে মুক্তাগাছা পৌর সভার সামনে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় পৌর মেয়রের বিচার দাবিতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে মেয়রের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, মুক্তাগাছা পৌর সভার সামনে রক্তিম স্বাধীনতা স্মৃতিস্তম্ভে যথারীতি শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে সংসদ সদস্য সালাহ উদ্দিন আহমেদ মুক্তি, উপজেলা চেয়ারম্যান জাকারিয়া হারুন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা সরকারসহ বিভিন্ন সংগঠনের লোকজন ফুলের তোড়া নিয়ে যান। সেখানে গিয়ে দেখেন চরম অব্যবস্থাপনার পাশাপাশি বিজয় মঞ্চের ব্যানার এবং পৌরসভার অন্যান্য কর্মসূচির কোথাও জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর ছবি ও জয় বাংলা শ্লোগান ব্যবহার করা হয়নি। এনিয়ে স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা, সন্তান, আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ বিভিন্নজন প্রতিবাদ করেন।

এরপর সেখানে উপস্থিত পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম শহিদ এ বিষয়ে কোন সদুত্তর না দিয়ে বিরূপ মন্তব্য করায় উপস্থিত লোকজন তাৎক্ষণিকভাবে মঞ্চ ভাঙচুর করে। এক পর্যায়ের উত্তেজিত জনতা পৌর মেয়রকে ধাওয়া করলে মেয়র কর্মচারীদের সহযোগিতায় দৌড়ে গিয়ে পৌর ভবনে আশ্রয় নেয়।

পরে মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধা সন্তান, শহর আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ, তাঁতী লীগ, ছাত্রলীগ, ওলামা লীগসহ লোকজন মেয়রের বিচার দাবিতে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে। বিক্ষোভ শেষে মুক্তাগাছা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে নেতারা অভিযোগ করেন বলেন, গত নির্বাচনে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি কেএম খালিদ বাবু ও সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন সরকারের সাথে আতাঁত করে নৌকার প্রার্থীকে পরাজিত করে শহর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম শহিদকে মেয়র নির্বাচিত করেন। এরপর থেকেই মেয়র একের পর এক স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধ বিরোধী কর্মকাণ্ড বাস্তবায়ন করছেন বলেও অভিযোগ করা হয়।

দ্রুত সময়ের মধ্যে মেয়রের অপসারণ ও বিচার দাবির পাশাপশি জাতির পিতাকে অবমাননার দায়ে মেয়রের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়।

কমেন্টস