রাজধানীতে শিশুসহ দুই রোহিঙ্গা নারী উদ্ধার: ২ দালালের কারাদণ্ড

প্রকাশঃ নভেম্বর ৩০, ২০১৭

ছবিতে আটক হওয়া রোহিঙ্গা নারী সেতারা বেগম ও তার শিশু কণ্যা শাফিকা, জাহেদা বেগম

ইসতিয়াক ইসতি।।

রাজধানীর ডেমরা থেকে শিশুসহ দুই রোহিঙ্গা নারীকে উদ্ধার করেছে র্যাব। বুধবার দিবাগত রাতে র্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো: গাউছুল আজমের নেতৃত্বে র‌্যাব-১০ যাত্রাবাড়ির একটি অভিযানিক দল তাদের উদ্ধার করে। এসময় রোহিঙ্গাদের দেশে ছড়িয়ে পড়তে সাহায্য করার অপরাধে দুই দালালকে আটক করে ভিন্ন মেয়াদে কারদণ্ড দেয়।

উদ্ভার হওয়া রোহিঙ্গারা হচ্ছেন, সেতারা বেগম (২৫)ও তার শিশু কণ্যা শাফিকা (৬), জাহেদা বেগম (১৬)। তাদের সহযোগিতা করার অপরাধে রাজু মোল্লা(৪৫) ও মোখলেছুর রহমান (৬৫) কে আটক করে র‌্যাব। বৃহস্পতিবার র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এসকল তথ্য জানায় র‌্যাব।

ছবিতে আটক রাজু মোল্লা ও মোখলেছুর রহমান।

এতে বলা হয়, আনুমানিক ছয়মাস পূর্বে সলিমুল্লাহর সঙ্গে জায়েদা বেগমের বিয়ে হয় মোবাইল ফোনের মাধ্যমে। অন্যদিকে আটক দালাল রাজু মোল্লার ভাতিজা রফিকুল ইসলাম তিন বছর যাবত মালয়েশিয়া থাকেন। সেখানেই সেতারা বেগমের ছোট ভাই সলিমুল্লার সঙ্গে তার পরিচয়। সলিমুল্লাহ অবৈধ পথে মালয়েশিয়া পাড়ি জমায় অনেক আগে। গত ২৫ নভেম্বর শিশুসহ দুই রোহিঙ্গা নারী রাজু মোল্লার বাসায় অবস্থান নেয় বাংলাদেশি পাসপোর্ট বানিয়ে বিদেশে যাওয়ার উদ্দেশ্যে। রাজু মোল্লা কেরাণিগঞ্জে অবস্থিত আনঞ্চলিক পাসপোর্ট অফিসের দালালদের মাধ্যমে তাদের পাসপোর্ট  করার চেষ্টা চালায়।

ভ্রাম্যমান আদালত রাজু মোল্লাকে ০৬ মাসের মোখলেসুর রহমানকে ০১ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করেন। আটক রোহিঙ্গা সেতারা বেগম ও তার শিশুকণ্যাকে বালুখালি রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এবং জাহেদা বেগমকে জামতলী ক্যাম্পে প্রেরণের জন্য নির্দেশনা দেন।

কমেন্টস