বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা মানুষে পরিণত হচ্ছে কক্সবাজারের জিন্নাত আলি

প্রকাশঃ অক্টোবর ১৩, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

১৯৮২ সালে জন্মগ্রহণ করেন তুরস্কের সুলতান কসেন। উচ্চতা ৮ ফুট ৩ ইঞ্চি। বর্তমানে বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা জীবিত মানুষ তিনিই। ১৯৮২ সালে জন্মগ্রহণ করেন। ২০০৯ সালের সেপ্টেম্বর গিনিস ওয়ার্ল্ড রেকর্ডস তাকে পৃথিবীর সবচেয়ে দীর্ঘকায় ব্যক্তির স্বীকৃতি পান তিনি। তার মতই আরেক লম্বা মানুষের সন্ধান মিলেছে বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল কক্সবাজার জেলার রামু উপজেলাধীন গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড়বিল গ্রামের।

১৯ বছর বয়সী এই যুবকের উচ্চতা ৭ ফুট ৮ ইঞ্চি। শুধু দৈহিক ভাবেই নয়, বৈচিত্র্য রয়েছে তার পায়েও। তার ডান পা বাম পায়ের চেয়ে দুই ইঞ্চি বড়। প্রত্যন্ত অঞ্চল গর্জনিয়ার দরিদ্র কৃষক পরিবারের সন্তান জিন্নাত আলি। এই লম্বা কিন্তু এম্নিতে নয়, নয় মোটেও স্বাভাবিক।

পিটুইটারি গ্রন্থিতে একটি টিউমারের কারণেই জিন্নাত আলির অস্বাভাবিক বৃদ্ধি। ধারণা করা হচ্ছে, দ্রুত চিকিৎসা করা না হলে খুব শিগগিরই বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা মানুষকেও ছাড়িয়ে যাবেন তিনি।

মা শাহাফুরা বেগম জানান, ছেলে লম্বা হওয়ার কারণে খাদ্য জোগানও দিতে হচ্ছে বেশি। শারীরিক অবস্থা ভাল নয়। মাথায় টিউমার, ডান পায়ে ঘা হয়ে পচন ধরেছে। এক পাও আরেক পায়ের চেয়ে দুই ইঞ্চি খাটো হয়ে যাচ্ছে। অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাও সম্ভব হচ্ছে না। তাদের পরিবারে ভিটে মাটি ছাড়া আর কোন অর্থ সম্পদও নেই।

জিন্নাত আলীর বাবা আমির হামজা জানান, ছেলে লম্বা হওয়ার কারণে এক জায়গা থেকে অন্য জায়গায় নিয়যাওয়াও মুশকিল হয়ে দাঁড়ায়। রিকশা, সিএনজি, মাইক্রো, জিপ গাড়িতে বসানো কষ্টকর। চিকিৎসার জন্য গত বছর স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা পরীক্ষার পর ঢাকা নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন। তাদের পরামর্শে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজে নেয়া হয় তাকে। কিন্তু টাকার অভাবে চিকিৎসার কিছুই করা হয়নি। ফিরে আসা হয় বাড়িতে। বর্তমানে তার শারীরিক অবস্থা দিন দিন অবনতির দিকে যাচ্ছে।

উখিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এবং রোহিঙ্গাদের রোগ প্রতিষেধক টিকা কার্যক্রমের সমন্বয়কারী ডা. মিসবাহ উদ্দিন আহমেদ জানান, জাইগানটিজম বা দৈত্যকার মূলত একটি টিউমার সংক্রান্ত রোগ। শরীরে অবস্থানকারী টিউমারের প্রভাবে অতিরিক্ত হরমোন নিঃসরণ হয়। এতে দেহ অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পায়। স্তর ভেদে চিকিৎসার মাধ্যমে টিউমারটি সরিয়ে ফেললে এ রোগ সেরে ওঠে।

চিকিৎসকরা বলেছেন- এই রোগের নাম জাইগানটিজম। মাথায় টিউমারের কারণে শরীরের হরমোনে বিরূপ প্রভাব পড়ে। ফলে শরীর দ্রুত বাড়তে থাকে। এদেশে এই রোগের চিকিৎসা ব্যয়বহুল বলেও জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

চিকিৎসকরাও একই কথা জানিয়েছেন জিন্নাতের বয়সী ছেলেরা সাধারণত ৫ থেকে সাড়ে ৫ ফুট লম্বা হয়। কিন্তু তার এই বৃদ্ধি অস্বাভাবিক। মাথায় টিউমার ও ডান পায়ে পচন ধরেছে। ডান পায়ের চেয়ে বাম পা দুই ইঞ্চি খাটো।

 

কমেন্টস