একজন করে কর্মকর্তা চালাচ্ছে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ২৮ টি শাখা!

প্রকাশঃ অক্টোবর ১৩, ২০১৭

খাইরুল ইসলাম বাশার-  

প্রবাসীদের জন্য বিশেষায়িত আর্থিক প্রতিষ্ঠান প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক। সারাদেশে ব্যাংকটির রয়েছে ৫৪ টি শাখা। ব্যাংকটির স্থায়ী কর্মকর্তা রয়েছে ১৫৭ জন। তবে আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে ব্যাংকটির ২৮ টি শাখায় রয়েছে মাত্র ১ জন করে  কর্মকর্তা।

‘দেশে ও প্রবাসে আপনারই পাশে’এই শ্লোগানকে সামনে রেখে প্রবাসী বাংলাদেশিদের আর্থিক সেবা প্রদানের লক্ষে বাংলাদেশ সরকার ২০১০ সালে এই ব্যাংকটি প্রতিষ্ঠা করে। ১ বিলিয়ন টাকা মূলধন নিয়ে ব্যাংকটি যাত্রা শুরু করে এই অর্থের ৯৫ ভাগ এসেছে প্রবাসী শ্রমিক কল্যাণ ফান্ড থেকে এবং বাকি ৫ ভাগ এসেছে বাংলাদেশ সরকার হতে।

প্রতিষ্ঠার ৭ বছর পার হয়ে গেলেও জনবল সংকট কাটিয়ে উঠতে পারেনি ব্যাংকটি। মাগুরা  শাখার ব্যবস্থাপক সেলিম রেজা বিডিমর্নিংকে জানান, আমি একাই সব কাজ করি প্রবাসীদের সাথে কথা বলা, অফিসিয়াল কাজ করা সব মিলিয়ে পেরে উঠা যায় না। জনবল না হলে কাজ করা সম্ভব হয় না।

এদিকে জানা গেছে, কিছুদিনের মধ্যে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকে যুক্ত হবে আরও ৯ টি শাখা।শেরপুর , নেত্রকোনা, নাটোর, বরগুনা, বাগেরহাট, সাতক্ষীরা, ঝিনাইদাহ, চুয়াডাঙ্গা, উজিরপুরে নতুন শাখা খুলছে।

প্রতিষ্ঠার পর থেকে প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক ২৪৬৮৯ জনকে ২৪১.১২ কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে। এর বাইরেও বিদেশ ফেরত ১৫৯ জনকে ২.৬৮ কোটি টাকা ঋণ সহায়তা দিয়েছে। প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংক বিদেশগামীদের মাত্র ৩ দিনে ৯% সুদে জামানতবিহীন ঋণ সহায়তা দিয়ে থাকেন। মাত্র ২ সপ্তাহে ১১% সুদে বিদেশ ফেরতদের ঋণ সহায়তা প্রদান করে।

আ. ন. ম. মাসরুরুল হুদা সিরাজী। ছবি- খাইরুল ইসলাম

প্রবাসী কল্যাণ ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আ. ন. ম. মাসরুরুল হুদা সিরাজী বলেন,  ২০১৬ -২০১৭ অর্থবছরে  বিদেশে যায় ৬ লক্ষ প্রবাসী কিন্তু আমরা ঋণ সহায়তা দিতে পেরেছি মাত্র ৬ হাজার বিদেশগামীকে। আমাদের ৫৪ টি শাখা থাকলেও ২৮ টি শাখায় মাত্র ১ জণ করে কর্মকর্তা । তবে খুব শিগ্রিই  নিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ করতে সক্ষম হবো বলে তিনি জানান,  এ ছাড়াও তিনি আরও বলেন  আমাদের তহবিল সংকট ছিল তবে আমরা ৩০০ কোটি টাকার অতিরিক্ত তহবিল পেতে যাচ্ছি।

তিনি তার ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার কথা বলতে গিয়ে জানান, জনবল বাড়িয়ে সকল প্রবাসীদের ঋণ সহায়তা দেয়া আমদের লক্ষ্য।

Advertisement

কমেন্টস