বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে ৩দিন আটকে রেখে বিধবাকে গণধর্ষণ

প্রকাশঃ অক্টোবর ১২, ২০১৭

আবীর আকাশ, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধিঃ

লক্ষ্মীপুরের রামগঞ্জে বিয়ের প্রতিশ্রুতি দিয়ে আটকে রেখে এক বিধবা নারীকে গণধর্ষণের অভিযোগ পাওয়া গেছে। জানা যায়, ৩ দিন যাবত ঐ নারীকে আটকে রেখে শারীরিক নির্যাতন করে স্থানীয় ভোলাকোট ইউপি চেয়ারম্যান বশির আহম্মদ মানিকের ছোট ভাই ও উপজেলার পূর্বাঞ্চলের সন্ত্রাসী বাহিনীর প্রধান এলজি নাসিরসহ তার সহযোগী ৪/৫জন মিলে।

বুধবার রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউনিয়নের আথাকরা গ্রামে এ ঘটনাটি ঘটে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনা স্থলে গিয়ে অসুস্থ অবস্থায় ঐ নারীকে উদ্ধার করে হাসপাতালত ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় আনোয়ার হোসেন নামে অভিযুক্ত এক ব্যক্তিকে আটক করা হয়েছে বলে পুলিশ জানায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, নোয়াখালীর আমিনের বিধবা মেয়েকে এলজি নাসিরসহ তার সহযোগী আনোয়ার হোসেনের মাধ্যমে গত ৯ অক্টোবর সোমবার রামগঞ্জ উপজেলার ভোলাকোট ইউনিয়নের আথাকরা গ্রামের ঠাকুর বাড়ির আঃ রশিদের ঘরে নিয়ে আসে।পরবর্তীতে নাসির তার সহযোগীসহ আথাকরা গ্রামের আকর উদ্দিন বেপারী বাড়ির আঃ হকের ছেলে পারভেজ, দেবনগর গ্রামের কাজী বাড়ির রব কাজীর ছেলে মনির হোসেন ও নোয়াখালী জেলার আনোয়ার হোসেনসহ ৪/৫জন মিলে ৩দিন যাবত ঐ বিধবা নারীকে ধর্ষণ করে। বিষয়টি বুধবার বিকালে স্থানীয়রা বিষয়টি বুজতে পেরে রামগঞ্জ থানা পুলিশকে খবর দেয়। খবর পেয়ে থানার এস আই আশরাফুল সঙ্গীয় পুলিশ সদস্য নিয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে অসুস্থ অবস্থায় বিধবা নারীকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে প্রেরন করেন।

রামগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মোঃ তোতা মিয়া জানান, এ ঘটনায় অভিযুক্ত একজনকে আটক করা হয়েছে। বাকীদেরকে আটকের চেষ্টা চলছে।

Advertisement

কমেন্টস