মুন্সীগঞ্জে ইসলামী ব্যাংক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে লোন জালিয়াতির অভিযোগ

প্রকাশঃ অক্টোবর ৫, ২০১৭

আল মাসুদ, মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি:

ইসলামী ব্যাংক মুন্সীগঞ্জ শাখার কর্মকর্তার লোন জালিয়াতির অভিযোগে শতাধিক ভুক্তভোগী গ্রাহকরা সংবাদ সম্মেলন, মৌন মিছিল ও স্বারক লিপি প্রদান করেছে। মৌন মিছিল শেষে গ্রাহকরা ইসলামী ব্যাংক ঘেরাও করলে ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি শান্ত করে পুলিশ। পরে গ্রাকদের পক্ষে ৪ জনকে ম্যানেজারের সাথে দেখা করে স্বারক লিপি দিতে বলা হয়।

বৃহস্পতিবার (০৫অক্টোবর) দুপুর ১২টার দিকে মুন্সীগঞ্জ প্রেসক্লাবের সফিউদ্দিন মিলনায়তনের সভাকক্ষে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী গ্রাহকরা ।

গ্রাহকদের পক্ষে মো. নাজিম উদ্দিন মাদবর বলেন, আমরা ১শ১৭ জন গ্রাহক। প্রত্যেকের নামে ৫০ হাজার থেকে ৩ লক্ষ টাকা লোন জালিয়াতির মাধ্যেমে ইসলামী ব্যাংক ফিল্ড অফিসার শহিদুল ইসলাম টিটু প্রায় সাড়ে ৩ কোটি টাকা আত্মসাৎ করে পালিয়ে গেছে।

তিনি বলেন, ‘শহিদুল ইসলাম টিটু আমাদের লোন করিয়ে দিবে বলে সকলের কাছ থেকে ছবি জাতীয় পরিচয়পত্র, নিয়ে যায় এবং বেশ কয়টি ফরমে সই (টিপ সইঁ) নিয়ে যায় । তিনি টিটু মহাখালি ইউনিয়ন পরিষদের প্যাণেল চেয়ারম্যান থাকা কালিন আমাদের নামে ট্রেড লাইসেন্সে বানিয়ে সকলের নামে ব্যাংক থেকে লোন উঠিয়ে টাকা আত্মসাৎ করে। আমাদের কারো কাছ থেকে ৩ লক্ষ কারো কাছে ৫ লক্ষ টাকা করে নিয়েছ’। এ বিষয়ে ব্যাংক কর্তৃক আমাদের কাছ থেকে চিঠি ইস্যু করে, আমাদের কাছে ব্যাংক লোন নেওয়ার টাকা পাবে। আমরা জানতে পারি আমাদের ১শ১৭ জন গ্রাহকদের নামে লোন ইস্যু করা হয়েছে। যা আমরা মেটেও জানিনা’।

এ বিষয়ে ইসলামী ব্যাংক ম্যানেজার জানান, ব্যাংক ফিল্ড অফিসার শহিদুল ইসলাম টিটুর বিরুদ্ধে ২ কোটি ৫০ লক্ষ টাকার মামলা করা হয়েছে। ইতি মধ্যে মামলা দুদকে চলে গেছে । সাধারণ মানুষের টাকা জালিয়াতীর মাধ্যেমে আত্মসাৎ করার কারণেই ব্যাংক বাদী হয়ে মামলা দায়ের করে। এ বিষয়ে দুদুকের তদন্ত চলছে।

Advertisement

কমেন্টস