বগুড়ায় নববধুকে গলা কেটে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭

এম তাজুল ইসলাম, বগুড়া প্রতনিধি-

বগুড়া শহরে নববধূকে গলা কেটে হত্যার পর স্বামী নিজেই আত্মহত্যার চেষ্টা চালিয়েছে। পরে পুলিশ স্বামীকে আহত অবস্থায় আটক করে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে (শজিমেক) ভর্তি করেছে।

বুধবার (১৩ সেপ্টেম্বর) সকালের দিকে বগুড়া শহরের চক ফরিদ প্রামাণিক পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। সকাল ৯টার দিকে পুলিশ নিহত নববধূ ফাতেমা খাতুনের (২২) মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য শজিমেক মর্গে পাঠিয়ে দেয়। একই সময় আহত স্বামী সুজন প্রামাণিককে (২৮) উদ্ধার করে শজিমেকে ভর্তি করে পুলিশ।

আহত স্বামী সুজন প্রামাণিক একই এলাকার আব্দুর রশিদ প্রামাণিকের ছেলে বলে জানা গেছে। বেলা সাড়ে ১২টার বগুড়া সদর থানার পুলিশ পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) আসলাম আলী বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, ‘প্রায় মাসখানেক আগে সুজন প্রামাণিকের সঙ্গে ফাতেমা খাতুনের বিয়ে হয়। মঙ্গলবার (১২ সেপ্টেম্বর) অন্যান্য দিনের ন্যায় রাতের খাবার খেয়ে ঘুমিয়ে পড়েন তারা। পরে সকালের দিকে স্বামী সুজন প্রামাণিক ধারালো অস্ত্র দিয়ে স্ত্রী ফাতেমা খাতুনকে গলা কেটে হত্যা করে।’

এরপর নিজে গলায় অস্ত্র চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায়। তবে স্ত্রীকে হত্যা ও নিজে আত্মহত্যা করার চেষ্টার কারণ সম্পর্কে জানাতে পারেননি পুলিশের এই কর্মকর্তা।

Advertisement

কমেন্টস