পাকিস্তানের রাষ্ট্র-ভাষা বাংলা না উর্দু? পুস্তিকার ৭০তম বর্ষপূর্তি উদযাপনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৭

ছবি- আলতাফ হোসাইন

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর রোজ শুক্রবার ‘পাকিস্তানের রাষ্ট্র-ভাষা বাংলা না উর্দু?’ বইয়ের ৭০বছর পূর্তি উপলক্ষে পুস্তিকার ৭০ বর্ষপূর্তি উদযাপনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

আজ বুধবার বিকেলে জনপ্রিয় অনলাইন নিউজ বিডিমর্নিংয়ের লালমাটিয়া অফিসে সভাটি অনুষ্ঠিত হয়।

প্রস্তুতি সভায় সভাপতিত্ব করেন বিডিমর্নিংয়ের হেড অব নিউজ ফারুক আহমাদ আরিফ। শুরুতেই প্রতিনিধিদের সাথে মতবিনিময় ও বিভিন্ন বিষয়ে দিক নির্দেশনা দেন বিডিমর্নিং এর সহযোগী সম্পাদক শাহরিয়ার নিশান।

এছাড়াও সভায় উপস্থিত ছিলেন বিডিমির্নিং এর প্রতিবেদক নিয়জ শুভ, মেজবাহ মিলন, মশিউর রহমান জারিফ, আসাদুল্লা লায়ন, আব্দুল্লাহ আল কাফি, আলতাফ হোসাইন, মেরিনা মিতু। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিনিধিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মো: রাশিদুল ইসলাম, এস এম ইমন, মনজুর হোসাইন চৌধুরী প্রমুখ।

আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর রোজ শুক্রবার ‘পাকিস্তানের রাষ্ট্র-ভাষা বাংলা না উর্দু?’  বইয়ের ৭০বছর পূর্তি। ওই দিন এ উপলক্ষে “বিডিমর্নিং” ও  ভাষা আন্দোলন গবেষণাকেন্দ্র ও জাদুঘর যৌথভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে।

বিকাল ৪ টায় এ উপলক্ষে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এক আলোচনা সভা ও ভাষা আন্দোলনের বিভিন্ন আলোকচিত্র পদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে।

আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মাননীয় উপাচার্য অধ্যাপক ড.আখতারুজ্জামান। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখবেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক রোবায়েত ফেরদৌস ।

বিডিমর্নিংয়ের প্রকাশক মো. আশরাফুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন ভাষাসৈনিক বিচারপতি কাজী এবাদুল হক, ভাষাসৈনিক অধ্যাপক আবদুল গফুর, ভাষাসৈনিক ড. জসীম উদ্দিন আহমদ, ভাষাসৈনিক রওশন আরা বাচ্চু, ভাষাসৈনিক আবদুল করিম, ভাষাসৈনিক বিএইচএম মনির উদ্দিন, ভাষাসৈনিক আবদুল জলিল, স্মারক বক্তা: এম আর মাহবুব নির্বাহী পরিচালক-ভাষা আন্দোলন গবেষণাকেন্দ্র ও জাদুঘর

অনুষ্ঠানে ভাষাসৈনিক ও ভাষা শহীদদের পরিবারের সদস্যরা উপস্থিত থাকবেন।

পাকিস্তানের রাষ্ট্রভাষা বাংলা না উর্দু’১৯৪৭ সনের ১৫ সেপ্টেম্বর ১৯ নং আজিমপুর থেকে তমদ্দুন মজলিসের পক্ষ থেকে ভাষা আন্দোলনের অগ্রদুত অধ্যাপক আবুল কাসেম কর্তৃক প্রকাশিত হয়েছিল আমাদের জাতীয় ইতিহাসের দুর্লভ এই দলিল আঠারো পৃষ্ঠার পুস্তিকাটি। এতে অধ্যাপক আবুল কাসেম, আবুল মনসুর আহমদ, ড. কাজী মোতাহার হোসেন এই তিনজনের লেখা ছাপা হয়। এই পুস্তিকাটিই ছিল ভাষা আন্দোলনের সূচক। পুস্তিকাটির মূল কপি সংরক্ষিত আছে ভাষা আন্দোলন গবেষণাকেন্দ্র ও জাদুঘরে।

Advertisement

কমেন্টস