গাইবান্ধায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, ফসলি জমির ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি

প্রকাশঃ আগস্ট ১৩, ২০১৭

ফরহাদ আকন্দ, গাইবান্ধা প্রতিনিধি:

কয়েক দিনের টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি অস্বাভাবিকভাবে বৃদ্ধি পেয়ে গাইবান্ধার বন্যা পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে। ব্রহ্মপুত্র, যমুনা ও ঘাঘট নদীর পানি বিপদসীমার ওপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

গাইবান্ধা পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মাহাবুবুর রহমান জানান, রবিবার বিকেল ৫টা পর্যন্ত পূর্ববর্তী ২৪ ঘন্টায় ফুলছড়ি তিস্তামুখঘাট পয়েন্টে ব্রহ্মপুত্র নদের পানি বৃদ্ধি পেয়ে বিপদসীমার ৫০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। তবে এভাবে আরো দুইদিন পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকতে পারে। এভাবে পানি বৃদ্ধি অব্যহত থাকলে জেলায় আবারও বড় ধরনের বন্যার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

পানি বৃদ্ধির কারণে গ্রামীণ কাঁচা সড়কসহ বেশ কিছু রাস্তা ডুবে গেছে। বিস্তীর্ণ এলাকার পাট, আমন বীজতলাসহ ফসলি জমি তলিয়ে গেছে। রাস্তা ঘাট তলিয়ে যাওয়ায় বাঁশের সাঁকো ও নৌকা দিয়ে পারপার হতে গিয়ে আরও দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন মানুষ। পানি উঠায় বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বেশ কিছু বিদ্যালয়ের পাঠদান কার্যক্রম।

নদীতে পানির প্রবল চাপে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের ফুলছড়ির উপজেলার সিংড়া-রতনপুর, বালাসীঘাটের কাইয়াঘাটসহ বেশ কয়েকটি পয়েন্ট ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। যে কোনও সময় বাঁধ ভেঙ্গে গিয়ে নতুন করে আরও হাজারো ঘরবাড়ি প্লাবিত হওয়ার আশঙ্কায় রয়েছেন স্থানীয়রা।

পানিবন্দি এসব মানুষের মধ্যে অনেকে তাদের বাড়িঘর ছেড়ে শেষ সম্বল নিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে ছুটছেন। এসব মানুষ পরিবার-পরিজন নিয়ে রেলের জায়গা, বাঁধ ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আশ্রয় নিতে শুরু করেছেন।

Advertisement

কমেন্টস