র‍্যাবের অভিযানে অস্ত্র নিয়ে যুবলীগের সভাপতিসহ ৪ ভাই আটক

প্রকাশঃ আগস্ট ১৩, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

কক্সবাজার জেলা পরিষদের সদস্য ও পেকুয়া উপজেলা যুবলীগের সভাপতি জাহাঙ্গীর আলম ও তাঁর চার ভাইকে আটক করেছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। জাহাঙ্গীরের ওই চার ভাইও পেকুয়া উপজেলা যুবলীগ-ছাত্রলীগের সাবেক ও বর্তমান নেতা-কর্মী।

আজ রোববার ভোর সাড়ে পাঁচটার দিকে পেকুয়া সদরের চৌমুহনী স্টেশনসংলগ্ন বাড়ি থেকে র‍্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের একটি দল অভিযান চালিয়ে তাঁদের আটক করে। র‍্যাব বলছে, তাঁরা ওই বাড়ি থেকে অস্ত্র, গুলি, মাদক ও ১৭ লাখ টাকা জব্দ করেছে।

জাহাঙ্গীরের আটক চার ভাই হলেন পেকুয়া উপজেলা যুবলীগের সদস্য মো. আলমগীর, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক মো. আজমগীর, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক বন ও পরিবেশবিষয়ক সম্পাদক মো. কাইয়ুম এবং উপজেলা ছাত্রলীগের বর্তমান যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. ওসমান সরওয়ার বাপ্পী।

র‍্যাব-৭ কক্সবাজার ক্যাম্পের অধিনায়ক মেজর রুহুল আমিনের ভাষ্য, ওই বাড়িতে আগ্নেয়াস্ত্র মজুত রয়েছে—এমন খবরের ভিত্তিতে আজ ভোরে অভিযান চালানো হয়। এ সময় জাহাঙ্গীরের বাড়ির একটি ঘর থেকে দেশীয় দুটি বন্দুক (এলজি), তাঁর শোয়ার কক্ষ থেকে একটি একনলা (লম্বা) বন্দুক, ১০টি গুলি, ইয়াবা ও ১৭ লাখ নগদ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে জাহাঙ্গীরকে আটক করার খবর ছড়িয়ে পড়লে আজ সকাল নয়টার দিকে পেকুয়া বাজার ও পেকুয়া চৌমুহনী স্টেশনে বিক্ষোভ মিছিল বের করেন আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা। পরে এক বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি মো. শহিদুল্লাহ, সাংগঠনিক সম্পাদক মফিজুর রহমান প্রমুখ। তাঁরা জাহাঙ্গীর ও তাঁর ভাইদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করেন।

Advertisement

কমেন্টস