কাশিয়ানীতে ঘুষ না দেয়ায় শিক্ষককে চাকরিতে যোগদানে বাঁধা

প্রকাশঃ এপ্রিল ২০, ২০১৭

এম শিমুল খান, কাশিয়ানী প্রতিনিধি :

গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে নিয়োগ পরীক্ষায় প্রথম হয়েও ঘুষ না দেয়ায় শিক্ষককে চাকরিতে যোগদানে বাঁধা দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার তারাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও ম্যানেজিং কমিটির কতিপয় সদস্যের বিরুদ্ধে এ অভিযোগ উঠেছে। এ ব্যাপারে ভূক্তভোগী ওই শিক্ষক গোপালগঞ্জ জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন।

লিখিত অভিযোগে জানা যায়, গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর উপজেলার তারাইল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক পদে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। পরীক্ষায় আট জন প্রার্থী অংশগ্রহণ করেন। এদের মধ্যে দেলোয়ার আহমেদ নামে ওই শিক্ষক সনদপত্র, লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষায় সর্বোচ্চ নম্বর পেয়ে নির্বাচিত হয়। এ সময় নিয়োগ বোর্ড শিক্ষক দেলোয়ার আহমেদকে নিয়োগ প্রদানের জন্য বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটিকে সুপারিশ করেন।

কিন্তু দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ৫ মাস অতিবাহিত হলে চললেও আজও নিয়োগ না দিয়ে প্রধান শিক্ষকসহ ম্যানেজিং কমিটির কতিপয় সদস্য নানা তালবাহানা করছেন। এমনকি নিয়োগের জন্য ৫ লক্ষ টাকা ঘুষ দাবি করছেন বলে অভিযোগ করেন ওই শিক্ষক।

এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক গজেন্দ্র মোহন বিশ্বাস ঘুষ চাওয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, সভাপতি বিদেশ থাকায় নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে পরীক্ষা নেয়া সম্ভব হয়নি, যার কারণে শিক্ষক নিয়োগ দানে আইনগত জটিলতা রয়েছে।

বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি এস, এম রবিউল আলম বিদেশে থাকার কথা অস্বীকার করে বলেন, অবশ্যই প্রথম স্থান অধিকারী শিক্ষককে স্কুলে নিয়োগ দেয়া হবে।কাশিয়ানী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো: রফিকুল ইসলাম বলেন, নিয়োগ না হওয়ার তো কোন কারণ নেই, স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষ ভাবে নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হওয়া সত্ত্বেও কমিটি কেন তালবাহানা করছে তা আমার জানা নেই।

কমেন্টস