আশকোনায় র‌্যাবের দফতরে আত্মঘাতী জঙ্গি হামলা, সারাদেশে রেড অ্যালার্ট

প্রকাশঃ মার্চ ১৭, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

রাজধানীর আশকোনায় হাজি ক্যাম্পের পাশে প্রস্তাবিত র‍্যাব সদর দপ্তরে আত্মঘাতী বোমা হামলার ঘটনা ঘটেছে।এর মাধ্যমে দেশে এই প্রথম আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দফতরে কোনও জঙ্গি হামলার ঘটনা ঘটলো।এদিকে এ হামলার ঘটনার পর সারাদেশের থানা, কারাগার, সকল বন্দরগুলোতে রেড অ্যালার্ট জারি করা হয়েছে।

দেশের থানাগুলোতেও নিরাপত্তা জোরদার করার পাশাপাশি পুলিশ সদস্যদের  বুলেটপ্রুফ জ্যাকেট ও হেলমেট পরে থানার গেটে ডিউটি করার নির্দেশও দেওয়া হয়েছে।

দেশে জঙ্গি গোষ্ঠীর উত্থানের পর থেকে ছোট-বড় একাধিক জঙ্গি হামলায় টার্গেট ছিল ব্যক্তি বা সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের ভবন। সে বিবেচনায় আজ শুক্রবার রাজধানীর আশকোনায় হাজি ক্যাম্পের ভেতরে অবস্থিত র‌্যাবের নির্মাণাধীন সদর দফতরই জঙ্গিদের প্রথম টার্গেট হলো।

কারা-অধিদফতরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন বলেন, ‘জঙ্গি হামলার পর সারাদেশের কারাগারগুলোতে তারা রেড এলার্ট জারি করেছেন। সকল কর্মকর্তা এবং কারারক্ষীদের সর্বোচ্চ সতর্ক অবস্থায় থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

বিমানমন্ত্রীর জনসংযোগ কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান তুহিন গণমাধ্যমকে বলেন, ‘সব বিমানবন্দরে অধিকতর সতর্কতা জারির নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।’

এদিকে শাহজালাল বিমানবন্দরের প্রধান নিরাপত্তা কর্মকর্তা রাশেদা সুলতানা জানান, ‘শাহজালালসহ সব বিমানবন্দরে বাড়তি নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হয়েছে।’

এদিকে র‌্যাবের মিডিয়া শাখার পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান সাংবাদিকদের বলেন,, ‘এখন ক্যাম্পের নিরাপত্তাকেই তারা বেশি গুরুত্ব দিয়ে দেখছেন। যেহেতু বিস্ফোরণ ঘটেছে, সেহেতু আর কোনও বিস্ফোরক আছে কিনা, বোম ডিসপোজাল ইউনিট সেটি পরীক্ষা করে দেখছে। কারণ, এখানে যারা কাজ করবেন, তাদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘বিস্ফোরকের ধরণ দেখে ধারণা করা হচ্ছে হামলাকারী কোনও জঙ্গিগোষ্ঠীর সদস্য।

উল্লেখ্য, এ ঘটনায় র‍্যাবের পরিচালক (গণমাধ্যম) মুফতি মাহমুদ খান বিকাল ৩টায় আনুষ্ঠানিক ব্রিফিং করেন।এসময় তিনি বলেন, নামাজের সময় হাজী ক্যাম্পের পাশে র‌্যাবের নির্মাণাধীন সদর দপ্তরে দেয়াল টপকে এক যুবক ভেতরে প্রবেশ করেন। র‌্যাব সদস্যরা তাকে চ্যালেঞ্জ করলে সে পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে। তখন তার শরীরের সঙ্গে বেঁধে রাখা বোমার বিস্ফারণ ঘটে। বোমার আঘাতে তার শরীর ছিন্নভিন্ন হয়ে যায়। এসময় দুইজন র‌্যাব সদস্যও আহত হন। তাদের সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বর্তমানে তারা আশংকামুক্ত রয়েছেন।

 

Advertisement

কমেন্টস