যে কারণে গভীর রাতে সৌদি রাজপ্রাসাদের বাইরে প্রচণ্ড গোলাগুলি (ভিডিও)

প্রকাশঃ এপ্রিল ২২, ২০১৮

ফাইল ছবি ও ফুটেজ থেকে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক-

শনিবার স্থানীয় সময় রাত ১১টার দিকে সৌদি আরবের রাজপ্রাসাদের বাইরে প্রচণ্ড গোলাগুলির ঘটনা ঘটে।  রাজধানী রিয়াদের রয়্যাল প্যালেসের সামনে প্রচণ্ড এ গোলাগুলির ঘটনায় সৌদি সরকার বা কোনো কর্তৃপক্ষ থেকে তাৎক্ষণিক কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি বলে মিররের খবরে উল্লেখ করা হয়।

খবরে বলা হয়েছে, গোলাগুলির একটি ভিডিও ফুটেজ টুইটারে শেয়ার করা হয়েছে। অসমর্থিত সূত্রের শেয়ার করা ওই ভিডিওর সত্যতা এখনও নিশ্চিত করা সম্ভব হয়নি।

এদিকে আলজাজিরার খবরে বলা হয়েছে, রয়্যাল প্যালেসের সামনে একটি ছোট আকারের ড্রোন উড়ছিল। ওই ড্রোনটি ভূপাতিত করতে নিরাপত্তারক্ষীরা গুলি ছুড়ে।

তবে ওই ড্রোনটি খেলনা ড্রোনের মত হলেও কে বা কারা সেটি কী উদ্দেশ্যে উড়িয়েছিল তা এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি। স্থানীয় পুলিশের বরাত দিয়ে আলজাজিরা জানিয়েছে, ড্রোন ওড়ানো এবং গোলাগুলির ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে।

এদিকে রয়টার্সের খবরে বলা হয়েছে, ড্রোন উড্ডয়ন এবং ভূপাতিত করার সময় সৌদি ক্রাউন প্রিন্স মুহাম্মদ বিন সালমান ওই প্যালেসে ছিলেননা। তিনি দিরিয়ায় তার একটি ফার্মে অবস্থান করছিলেন।

রিয়াদ পুলিশের একজন মুখপাত্র শনিবার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা এসপিএ-কে জানিয়েছেন, নিরাপত্তা বাহিনী খুজামা এলাকা সংলগ্ন চেক পয়েন্টে একটি অননুমোদিত খেলনার ড্রোন চিহ্নিত করেছে। পরে তারা সেটিকে ভূপাতিত করেছে।

সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রকাশিত এক ভিডিও ফুটেজে তীব্র গোলাগুলির শব্দ শুনতে পাওয়া যায়। ৩০ সেকেন্ড স্থায়ী ওই গোলাগুলির ঘটনায় দেশটিতে রাজনৈতিক অস্থিতিশীলতার বিষয়টি ধারণা করা হচ্ছে।

কাতারভিত্তিক সংবাদ মাধ্যম আল-জাজিরা বলছে, তারা নিরপেক্ষভাবে ওই ভিডিও’র সত্যতা যাচাই করতে পারেনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন জ্যেষ্ঠ সৌদি কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বলেছেন, ওই ঘটনার সময় বাদশাহ সালমান রাজপ্রাসাদে ছিলেন না। তিনি বলেন, বাদশাহ ওইসময় রিয়াদের দিরিয়ায় তার ফার্মে ছিলেন।

এর আগে গেলো বছরের অক্টোবরে জেদ্দায় বাদশাহর রাজপ্রাসাদের বাইরে একজন বন্দুকধারী গুলিবর্ষণ করলে দুই নিরাপত্তা রক্ষী নিহত হয়। এসময় আহত হয় আরও তিনজন। পরে অবশ্য নিরাপত্তা বাহিনী ওই বন্দুকধারীকে গুলি করে হত্যা করে।

কমেন্টস