Bootstrap Image Preview
ঢাকা, ১৯ বুধবার, সেপ্টেম্বার ২০১৮ | ৩ আশ্বিন ১৪২৫ | ঢাকা, ২৫ °সে

‘অ্যাক্সিডেন্ট নয়, খুন করা হয়েছে শ্রীদেবীকে’

বিডিমর্নিং ডেস্ক
প্রকাশিত: ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১২:৩২ PM আপডেট: ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৮, ১২:৩৫ PM

bdmorning Image Preview


 বিডিমর্নিং বিনোদন ডেস্ক-

বলিউডের নারী সুপারস্টার শ্রীদেবী দুবাইয়ের একটি হোটেলে মৃত্যুর পর দরজা ভেঙে তার মরদেহ উদ্ধার করেন স্বামী বনি কাপুর। স্বামীর সঙ্গে ডিনার করার জন্য ফ্রেশ হতে বাথরুমে গিয়েছিলেন তিনি। বাথরুমে গিয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বাথটাবে পড়ে যান তিনি। পানিভর্তি বাথটাবে দম আটকে তার মৃত্যু হয়। এমনটিই জানতো সবাই। কিন্তু ভারতের ক্ষমতাশীল দল  বিজেপি সাংসদ সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর এবার দিয়েছেন ভয়াবহ তথ্য। অ্যাকসিডেন্ট নয় শ্রীদেবীকে খুন করা হয়েছে৷! তার এমন মন্তব্য করে এবার শোরগোল ফেলে দিয়েছে ভারত জুড়ে।

শ্রীদেবী জীবনে কোনদিন মদ খান নি, তিনি মদ খেয়ে বাথটবে ডুবে মারা গেলেন এটা হতে পারে না বলেই মত সুব্রহ্মণ্যম স্বামীর৷ শ্রীদেবীর মৃত্যুর জন্য বলিউড-অপরাধ জগতের সম্পর্ক থাকতে পারে বলেই বোমা ফাটিয়েছেন তিনি৷

শ্রীদেবী কোনদিন মদ খেতেন না। শুধু বিজেপি সাংসদ সুহ্মমণিয়াম স্বামী নন, একই কথা বলছেন সমাজবাদী পার্টির নেতা অমর সিং ও। শ্রীদেবীর অত্যন্ত ঘনিষ্ঠ ছিলেন সুহ্মমণিয়াম স্বামী ও অমর সিং। তাদের দুজনেরই বক্তব্যে সন্দেহের তীর খুনের দিকেই।

দুবাই পুলিশও এই নিয়ে চিন্তা ভাবনা করছে। তবে ময়নাতদন্তের রিপোর্টে কিন্তু জলে ডুবে মৃত্যুর কথাই লেখা হয়েছে। এবং ময়নাতদন্তে মৃত শ্রীদেবীর পেটে অ্যালকোহল পাওয়া গেছে। প্রশ্ন এখানেই। শ্রীদেবী যদি মদ না খেতেন, তাহলে তার পেটে মদ গেল কি করে ?

এদিকে শ্রীদেবীর স্বামী বনি কাপুরকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুবাই পুলিশ। কারণ তিনিই প্রথম অভিনেত্রীকে বাথরুমের বাথটাবে পড়ে থাকতে দেখেন। জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে জুমাইরাহ এমিরেটস হোটেলের কর্মীদেরও। এ ছাড়া মোহিত মারওয়ার পরিবারের সদস্যদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। খতিয়ে দেখা হচ্ছে শ্রীদেবীর ফোনের কললিস্টও, খবর সূত্রের।

সূত্র আরো জানিয়েছে, তদন্ত চলাকালে শ্রীদেবীর লাশ আল কুসাইসের মর্গে রাখা হবে এবং হোটেলের রুমটি পুলিশ সীলমোহর করে রেখেছে।

দুবাই পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, `ফরেনসিক রিপোর্ট আমরা দেখেছি। সেখানে অনেকগুলো প্রশ্ন উঠেছে, তাই আমরা বিষয়টি অনুসন্ধান করতে চাই। তবে জিজ্ঞাসাবাদের পর অভিনেত্রীর লাশ ভারতে নিয়ে যেতে দেয়া হবে।'

এরই মধ্যে রহস্য তৈরি করেছে শ্রীদেবীর মৃত্যুর খানিক আগে তাঁর সহ-অভিনেতা অমিতাভ বচ্চনের টুইট।ভারতীয় সময় রাত পৌনে দুটায় বিগ বি এক টুইটার বার্তায় হিন্দিতে লেখেন, “না জানে কিউ, এক আজব সি ঘাবড়াত হো রাহি হ্যাঁয়।” অর্থাৎ, তিনি এক অদ্ভুত অস্থিরতা বোধ করছেন। এর কিছুক্ষণ পর খবর আসে, দুবাইয়ে এক বিয়ের অনুষ্ঠান থেকে হোটেলে ফেরার পথে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মাত্র ৫৪ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন ভারতের অন্যতম শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রী শ্রীদেবী।

এদিকে শ্রীদেবীর দেবর সঞ্জয় কাপুর বললেন, আগে কখনো হৃদরোগে আক্রান্ত হননি শ্রীদেবী। সঞ্জয়ের এমন বক্তব্যের পরই মূলত শুরু হয়েছে নতুন গুঞ্জন। তবে কীভাবে মারা গেলেন শ্রীদেবী?

সংযুক্ত আরব আমিরাতের ইংরেজি দৈনিক খালিজ টাইমসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সঞ্জয় কাপুর বলেন, ‘শ্রীদেবীর এই অকালপ্রয়াণে পুরো পরিবার শোকস্তব্ধ। মৃত্যুর সময় হোটেলেই ছিলেন শ্রীদেবী।’

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, আজ মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ফিরতে পারে অভিনেত্রীর দেহ। দুবাইয়ের সরকারি আইনজীবীর অনুমতির পরই দেহ মুম্বাইয়ে ফেরানো সম্ভব।

দুবাইয়ের নিয়ম অনুযায়ী, হাসপাতালের বাইরে যে কোনো জায়গায় মৃত্যুর ঘটনা ঘটলে তা ভালোভাবে তদন্ত করে দেখা হয়। এমনকি সেটি স্বাভাবিক মৃত্যু হলেও তা পরীক্ষা করে দেখতে হবে।

এদিকে, দুবাইয়ে ভারতের রাষ্ট্রদূত গতকাল সন্ধ্যায় এক টুইটে জানিয়েছেন, এই ধরনের মামলাগুলোতে প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে ২-৩ দিন সময় লাগে। তবে দূতাবাস সুপারস্টার এই অভিনেত্রীর পরিবারের সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছে। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব তার মরদেহ ভারতে পাঠানো হবে।

সূত্রঃ কলকাতা২৪
Bootstrap Image Preview