ছোট মামার ধর্ষণে কন্যাশিশুর জন্ম দিল ১০ বছরের শিশু!

প্রকাশঃ অক্টোবর ১০, ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক-

ভারতের চন্ডিগড়ে গণধর্ষণের ফলে গর্ভবতী হয়ে পড়া ১০ বছরের শিশুটি গত আগস্টে চন্ডিগড় সরকারি হাসপাতালে একটি মেয়ে সন্তানের জন্ম দেয়। শিশুটির জন্ম দেয়া বাচ্চাটির পিতৃপরিচয় নিশ্চিত হয়েছে পুলিশ। নতুন করে ডিএনএ পরিক্ষার মাধ্যমে দেখা গেছে বাচ্চাটির বাবা মেয়েটির ছোট মামা।

এর আগে কন্যাশিশুটিকে ধর্ষণের অভিযোগে মেয়েটির বড় মামাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। কিন্তু জন্ম নেয়া শিশুটির সাথে ধর্ষণের শিকার মেয়েটির বড় মামার ডিএনএ’র কোন মিল পাওয়া যায়নি। যদিও ওই ব্যক্তিও ধর্ষণ করেছে বলে মনে করছে পুলিশ।

এরপরে শিশুটির দেয়া ভাষ্যে ওই ব্যক্তির ছোটভাইকেও গ্রেফতার করে পুলিশ। আদালতের অনুমতি নিয়ে ডিএনএ পরীক্ষা করার পরে দেখা যায় বাচ্চাটির বাবা তার ছোট মামা।

পুলিশ সূত্রের বরাতে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, শিশুটিকে আরো অনেকে ধর্ষণ করেছে এবং তাদেরকে হয়তো ইতিমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। একজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা বলেছেন, প্রধান অভিযুক্ত শিশুটিকে ধর্ষণ করলেও ডিএনএ পরীক্ষায় এটা পরিষ্কার যে কন্যাশিশুর বাচ্চাটির বাবা তার ছোট মামা। এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গুরজিত কোর বলেছেন, এই মামলার সম্পূরক চালান মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আদালতে দাখিল করা হবে।

মেয়েটি অবশ্য জানে না যে সে সন্তানের জন্ম দিয়েছে, তাকে বলা হয়েছে পাকস্থলী থেকে পাথর সরানো হয়েছে। এর আগে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট মেয়েটির ঝুঁকির কথা চিন্তা করে গর্ভপাতের আবেদন প্রত্যাখ্যান করে।

কমেন্টস