পুলিশ আটকের পর ১ ঘণ্টায় ১৬৮ বোতল মদ হয়ে গেল ১১৮ বোতল!

প্রকাশঃ অক্টোবর ২, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁয়ের মেঘনা টোল প্লাজার সামনে থেকে ১৪টি কার্টনে ১৬৮ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করেছে পুলিশ। আটকের পর ১ ঘণ্টায় ৫০ বোতল মদ উধাও হয়ে ১৬৮ বোতল মদ হয়ে গেল ১১৮ বোতল! 

এদিকে, ১৪টি কার্টনে ১৬৮ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার হলেও থানায় দায়ের করা অভিযোগে ১১৮ বোতল মদ উদ্ধার দেখানো হয়েছে। সোনারগাঁ থানার এসআই আব্দুল আলীম পাঁচ লাখ টাকার মদ উধাও করে দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

রবিবার ভোররাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে চোকপোস্ট বসিয়ে যানবাহনে তল্লাশি চালিয়ে এসব মদ আটক করা হয়। এসময় মদের সঙ্গে দুইজন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে সোনারগাঁ থানায় ১১৮ বোতল মদ ও একটি সাদা রঙের প্রাইভেট কার উদ্ধার দেখিয়ে একটি মামলা দায়ের করা হয়।

জানা যায়, ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মেঘনা টোল প্লাজার সামনে তল্লাশিকালে ঢাকা থেকে কুমিল্লাগামী একটি প্রাইভেট কার থেকে ১৪টি কার্টনে ১৬৮ বোতল বিদেশি মদসহ বিপ্লব খান ও সবুজ মিয়া নামের দুইজনকে গ্রেফতার করা হয়। তবে অজ্ঞাতনামা এক আসামি পালিয়ে যায়। এ সময় একটি সাদা রঙের প্রাইভেট কার উদ্ধার করা হয়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে প্রত্যক্ষদর্শী এক ব্যক্তি জানান, ‘সোনারগাঁ থানার এসআই আব্দুল আলীম এবং সঙ্গীয় ফোর্স আবু হানিফ ও ইউসুফ একটি সাদা রঙের মাইক্রোবাস থেকে ১৪টি কার্টনে ১৬৮ বোতল বিদেশি মদ উদ্ধার করেন।’

সোনারগাঁ থানার ওসি মোর্শেদ আলম বলেন, ‘সোনারগাঁ থানায় ১১৮ বোতল মদ উদ্ধার হয়েছে। তবে বেশি উদ্ধার করে কম দেখানোর বিষয়টি প্রমাণিত হলে এসআই’র বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

সোনারগাঁ থানার এসআই আব্দুল আলিমের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘উদ্ধার হওয়া ৫০ বোতল মদ উধাও হওয়ার ঘটনাটি সত্য নয়।’

কমেন্টস