সন্ত্রাসের অভিযোগে ভূমিমন্ত্রীপুত্রসহ ১১ জন গ্রেফতার

প্রকাশঃ মে ১৯, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

পাবনার ঈশ্বরদী পৌর যুবলীগের স্থগিত কমিটির সভাপতি শিরহান শরীফ তমালসহ ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার গভীর রাত থেকে আজ শুক্রবার ভোর পর্যন্ত উপজেলা শহরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। তমাল ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফের ছেলে।

এ ব্যাপারে ঈশ্বরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল হাই তালুকদার প্রতিবেদককে বলেন, হামলা-ভাঙচুরের অভিযোগে করা মামলায় পুলিশ ভূমিমন্ত্রীর ছেলে শিরহান শরীফ তমালসহ ১১ জনকে গ্রেফতার করেছে।

বাকি ১০ জন হলেন শহরের মধ্যঅরণকোলার মাসুম আহমেদ, ইস্তা গ্রামের সাইফুদ্দিন, শেরশাহ রোডের সবিরুল ইসলাম, মেহেদী হাসান, দুই ভাই মাহবুব হাসান ও প্রিন্স ইসলাম, জাফর ইকবাল, পূর্বটেংরীর রনি ইসলাম, নূরমহল্লার জাহাঙ্গীর হোসেন ও আমিনপাড়ার মোহাম্মদ বিন সালামের ছেলে ফাহাদ। গ্রেফতারের পর এই ১১ জনকে ঈশ্বরদী থেকে পাবনা নিয়ে যাওয়া হয়।

পুলিশের ভাষ্য, ঈশ্বরদীতে শিরহান শরীফ তমালের বিরুদ্ধে বেশ কিছুদিন ধরে একাধিক সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠে। গতকাল দুপুরে বাজারে ফুড জংশন ও লক্ষ্মী মিষ্টান্ন ভাণ্ডার নামের দুইটি দোকানে হামলা চালিয়ে ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এরপর শহরের কলেজ রোডে মুক্তিযোদ্ধা আজমল হক বিশ্বাসের ছেলে যুবলীগের সাবেক নেতা আরিফুল হাসান বিশ্বাস ও উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসের শহীদ আমিনপাড়ার বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটে। এসব ঘটনায় ঈশ্বরদী পৌর যুবলীগের স্থগিত কমিটির সভাপতি শিরহান শরীফ তমাল ও সাধারণ সম্পাদক রাজীব সরকারের জড়িত থাকার অভিযোগ উঠে।

বাড়িতে হামলা, ভাঙচুর ও লুটপাটের অভিযোগে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি জুবায়ের বিশ্বাসের বাবা আতিয়ার রহমান বিশ্বাস গতকাল রাতেই বাদী হয়ে ঈশ্বরদী থানায় তমালসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন।

পাবনার পুলিশ সুপার জিহাদুল কবির প্রথম আলোকে বলেন, গতকাল একাধিক হামলার ঘটনার মধ্যে শুধুমাত্র জুবায়ের বিশ্বাসের বাবা বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার পরপরই আসামিদের গ্রেফতার অভিযান শুরু করে পাবনা ও ঈশ্বরদী থানা-পুলিশ। গতকাল রাত আড়াইটার দিকে শহরের আলিবর্দী রোডে ভূমিমন্ত্রীর বাড়িতে পুলিশ অভিযান চালায়। বাড়ি থেকে মন্ত্রীর ছেলে তমালকে গ্রেপ্তার করা হয়। বাকি ১০ জনকে শহরের বিভিন্ন এলাকা ও বাড়ি থেকে গ্রেফতার করা হয়।

কমেন্টস