ডিজিটাল বাংলাদেশে ‘নিউ মিডিয়া’ আলাপ দিয়ে দ্বিতীয় বছর শুরু করলো ‘বানান ‘

প্রকাশঃ এপ্রিল ২৯, ২০১৭

বিডিমর্নিং  ডেস্ক ।।

বাংলাদেশ জাতীয় জাদুঘরের প্রধান মিলনায়তনে হয়ে গেল বানানের ১ বছর পূর্তি উদযাপন । এই উদযাপনে ‘নিউ মিডিয়া:নতুন দুনিয়া-সম্পর্কের আলাপ’ বিষয়ে কথা বলেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, লেখক সুমন রহমান, শিক্ষক মানস চৌধুরী, শিক্ষক ফাহমিদুল হক, নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী, শিক্ষক মোহাম্মদ আজম, নির্মাতা ও সংগঠক ইশতিয়াক জিকো, শিক্ষক ও অ্যাক্টভিস্ট শর্মি হোসেন । দেড় ঘণ্টার এই প্যানেল ডিসকাশন পর্বের শেষে ওপেন ডিসকাশনে হাজির শ্রোতারাও অংশ নেন।

আয়োজনের শুরুতেই শফিক শাহীনের আমন্ত্রণে বানানের সংক্ষিপ্ত পরিচয় দেন মোহাম্মদ রোমেল। জানান, বাংলার ভাব-ভাষা ও নানান ধরনের চর্চাকে প্রেক্ষিতসহ তুলে দিতে সাইটটির যাত্রা। এরপর মুস্তাইন জহিরের সঞ্চালনায় আড্ডায় অংশ নেন চলচ্চিত্র নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী, শিক্ষক ও লেখক সুমন রহমান, শিক্ষক ও লেখক মানস চৌধুরী, ‌শিক্ষক ও গ‌বেষক ফাহ‌মিদুল হক , নির্মাতা অমিতাভ রেজা চৌধুরী, শিক্ষক ও গবেষক মোহাম্মদ আজম, নির্মাতা ও সংগঠক ইশতিয়াক জিকো এবং শিক্ষক ও সংগঠক শর্মি হোসেন।

আলোচকদের ভাষ্যে উঠে আসে বাংলাদেশের নিউ মিডিয়ার ব্যবহার, তার নানা ভূমিকা ও ভবিষ্যতের ইশারা। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোহাম্মদ আজম জোর দেন, চিন্তাশীল লেখালেখিতে স্যোশাল মিডিয়া তথা ফেসবুকের ভূমিকাকে। অন্যদিকে নির্মাতা ইশতিয়াক জিকো প্রশ্ন রাখেন নয়া মিডিয়ার ভাষা ও চলচ্চিত্রের সাথে তার সম্পর্ক নিয়ে। সিনে ক্লাবগুলোর একত্রিত হওয়ার উপযোগিতা নিয়েও কথা বলেন।

ইউল্যাবের শিক্ষক সুমন রহমান তুলে ধরেন বাংলা ব্লগিংয়ের বিভিন্ন পর্যায়। শাহবাগ আন্দোলন ও তার পরবর্তী পর্যায়ে ব্লগ সংস্কৃতি ও স্যোশাল মিডিয়ার ভাব ভাষা পরিবর্তন ও নানা কর্তৃপক্ষের নজরদারি ও সীমাবদ্ধতা তুলে ধরেন।

তবে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মানস চৌধুরী আড্ডার বিষয়বস্তুর ইশারা নিয়ে আপত্তি তোলেন। তার মতে, নিউ মিডিয়া বলতে যা বোঝানো হচ্ছে তা মূলত নতুন প্রযুক্তির আবির্ভাব— যার সঙ্গে দুনিয়া সম্পর্কের রাজনীতি বদলের সম্পর্ক নেই। তার বদলে সমাজের নানা ফোরামগুলো কতটা যুথবদ্ধ তার দিকে নজর দিতে বলেন।

অন্যদিকে শিক্ষক ফাহমিদুল হক ও শর্মি হোসেন তত্ত্বীয় দিক থেকে সোশ্যাল মিডিয়ার নানা প্রবণতা তুলে ধরেন।

সমসাময়িক চলচ্চিত্রের ভাষা, তার সঙ্গে নিউ মিডিয়ার সম্পর্ক ও বিপনন-প্রদর্শন ব্যবস্থার হাল অবস্থা নিয়ে কথা বলেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী ও অমিতাভ রেজা চৌধুরী। আড্ডা শেষে দুই নিমার্তা বানান ডট স্পেসের নতুন নকশা উদ্বোধন করেন। আর ছিল উম্মুক্ত আলোচনা ও ফকিরি গান।

এ আয়োজন সম্পর্কে বানানের পক্ষ থেকে বলা হয়, প্রযুক্তির নতুন নতুন আবির্ভাব আমাদের ভাবনা-বাসনার বদলসহ দুনিয়া পাল্টাচ্ছে দ্রুত। সব বদল সুবিধার হচ্ছে তেমন না। তবে ভাল-খারাপের বাইরে এই বদলের রূপ-রস বুঝা নতুন দুনিয়া বুঝার সমান। ফলে নিউ মিডিয়ার যুগে বসবাস, তাকে বুঝা, তার মধ্য দিয়ে অন্য এবং অনেকের সাথে আমাদের নতুন জন্মের যে ইতিহাস গড়ে উঠছে; ‘বানান’ এই বিশেষ হয়ে উঠা মুহূর্তের প্রতি মনোযোগী। এমন ভাব-বাস্তবতায় প্রথম বর্ষপূর্তিতে নতুনরূপে হাজির হচ্ছে ‘বানান’।

এস এম রেজাউল করিমের করা বানানের নতুন ওয়েব ডিজাইন (http://www.banan.space/update/) জাতীয় জাদুঘরের মহাপরিচালক জনাব ফয়জুল লতিফ চৌধুরী উদ্বোধন ঘোষণা করার কথা থাকলেও তাঁর ব্যস্ততাজনিত কারণে অনুপস্থিতির জন্য পরে যৌথভাবে এর উদ্বোধন করেন নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী এবং অমিতাভ রেজা চৌধুরী।

Advertisement

কমেন্টস