এক মাসের মধ্যে রাজধানী থেকে ট্যানারি সরানোর নির্দেশ

প্রকাশঃ জানুয়ারি ১, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-
রাজধানীর হাজারীবাগ থেকে ট্যানারি স্থানান্তরে আরও এক মাস সময় দিয়েছে সরকার। সে ক্ষেত্রে ৩১ জানুয়ারির মধ্যে ট্যানারির কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াজাতকরণ (ওয়েট ব্লু) অংশ সাভারে স্থানান্তরের কাজ শেষ করতে হবে। আর আগামী ৩১ মার্চের মধ্যে ট্যানারির পুরো অংশ সরিয়ে নেওয়ার সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে।

রবিবার শিল্প মন্ত্রণালয়ে হাজারীবাগের ট্যানারি মালিকদের দুই সংগঠনের সঙ্গে বৈঠক শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে শিল্প সচিব মো. মোশাররফ হোসেন ভূঁইয়া নতুন সময়সীমার কথা জানান।

তিনি বলেন, ‘শেষবারের মতো সময় বাড়ানো হলো। এরপর আর সময় দেওয়া হবে না। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ট্যানারি না সরালে গ্যাস ও বিদ্যুতের লাইন কেটে দেওয়া হবে। এটাই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত।’

এর আগে সিদ্ধান্ত ছিল ১ জানুয়ারি থেকে রাজধানীর হাজারীবাগে আর কোনো কাঁচা চামড়া প্রক্রিয়াজাত হবে না। ২৮ দফা নোটিশ দিয়েও ট্যানারি স্থানান্তর প্রক্রিয়া শেষ হয়নি।

সাভারের হেমায়েতপুরের হরিণধরায় ধলেশ্বরী নদীর পাশে ২০০ একর জমিতে চামড়া শিল্পনগরী স্থাপন করেছে বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক)। এরইমধ্যে সরকার শিল্পনগরীতে কেন্দ্রীয় বর্জ্য পরিশোধনাগার (সিইটিপি) নির্মাণ করে দিয়েছে। তবে ট্যানারি স্থানান্তরের জন্য কয়েক দফা সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হলেও শেষ পর্যন্ত তা সম্ভব হয়নি। বারবারই ট্যানারি মালিকরা সময় বাড়ানোর অনুরোধ করে আসছেন।

এখনও বেশিরভাগ ট্যানারি চামড়া শিল্পনগরীতে যেতে পারেনি। সাভারে ১৫৫ ট্যানারি স্থানান্তরের কথা থাকলেও এ পর্যন্ত স্থানান্তর হয়েছে প্রায় ৩৬টি ট্যানারি। স্থানান্তর না হওয়া ট্যানারিগুলো সুপ্রিম কোর্টের রায় অনুযায়ী দিনে ১০ হাজার টাকা জরিমানা দিচ্ছে।

সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, কয়েক কোটি টাকা জরিমানা হলেও ট্যানারিগুলো ৮০ লাখ টাকা জরিমানা জমা দিয়েছে। তবে বেশিরভাগ ট্যানারি সাভারে কারখানার ভবনের কাজ বেশ এগিয়ে নিয়েছে। তবে পুরোপুরি ট্যানারি স্থানান্তরে আরও ছয় মাস সময় দাবি করছেন ব্যবসায়ীরা।

কমেন্টস