কিশোরগঞ্জে সাহসী কলেজছাত্রীর সাহসিকতা ও বুদ্ধিমত্তায় ডাকাত সর্দার কুপোকাত

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ১৩, ২০১৮

ক্রাইম ডেস্ক।।

কিশোরগঞ্জের কটিয়াদীতে শাহিদা আক্তার একা (১৭) নামে এক কলেজছাত্রীর সাহসী ভূমিকা ও বুদ্ধিমত্তায় ডাকাত সর্দার কুপোকাতের ঘটনা ঘটেছে।

কুপোকাত হয়েছে মিলন মিয়া (৪৫) নামে এক ডাকাত সর্দার। ঘটনাটি উপজেলার লোহাজুরী ইউনিয়নের উত্তর পূর্বচর পাড়াতলা গ্রামে ঘটেছে।

সাহসী শাহিদা আক্তার কটিয়াদী ডা. আবদুল মান্নান মহিলা কলেজের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী, উপজেলার সাবেক সেনা সদস্য মো. শহিদুল্লার মেয়ে।

ডাকাত সর্দার মিলন মিয়ার বাড়ি কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ উপজেলায়।

জানা গেছে, সোমবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে একদল ডাকাত দেশীয় অস্ত্র নিয়ে মো. শহিদুল্লার বাড়িতে দরজা ভেঙে ঘরে ঢুকে স্বর্ণালংকার ছিনিয়ে নিতে চাইলে চিৎকার দেন তার স্ত্রী জাহানারা। পাশের ঘরে থাকা গৃহকর্তা শহিদুল্লাহ দরজা খুলতেই অতর্কিত হামলা চালিয়ে আহত করে।

এ সময় শাহিদা আক্তার একা ডাকাত সর্দারকে জাপটে ধরে। এ অবস্থায় ডাকাত তার মাথায় এবং হাতে সজোরে আঘাত করে ছুটে যেতে চাইলেও শাহিদা তাকে ছাড়েনি।

ঘটনার এক পর্যায়ে, তাদের চিৎকারে এলাকাবাসী এগিয়ে এলে শাহিদার হাতে ধরাপড়া ডাকাত পালিয়ে যাওয়ার জন্য তাকে টেনেহিঁচড়ে অনেক দূর নিয়ে গেলও সে তাকে ছাড়েনি। এ সময় এলাকাবাসী এসে ডাকাত সর্দার মিলনকে আটক করে বেঁধে রাখে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য কিশোরগঞ্জ সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়।

এ ঘটনায় মো. শহিদুল্লাহ (৫৫), জাহানারা (৩৫), সাবিনা আক্তার (২৫), শাহিদা আক্তার একা (১৭) ও এসএসসি পরীক্ষার্থী জুনায়েদ হোসেন অপু (১৬) আহত হয়েছেন। তাদেরকে উদ্ধার করে কটিয়াদী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে স্বজনরা।

এটি একটি চুরির ঘটনা হতে পারে, এ বিষয়ে তদন্ত চলছে বলে জানান,কটিয়াদী মডেল থানার ওসি জাকির রব্বানি।

তিনি আরো জানান, ডাকাত সর্দার মিলন মিয়াকে আটক করা হয়েছে।

কমেন্টস