সরিষাবাড়ীতে ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গ্রেফতার

প্রকাশঃ সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৭

Advertisement

এহসান তালুকদার, জামালপুর প্রতিনিধি-

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে পিংনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষক গোলাম মাসুদকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার রাতে ছাত্রীর পিতা বাদী হয়ে শিক্ষক গোলাম মাসুদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। ওই মামলায় গ্রেফতারের ভয়ে পালিয়ে যাওয়ার সময় গোপন সংবাদে আজ মঙ্গলবার ভোরে ধর্ষক শিক্ষক গোলাম মাসুদকে পাশের গোপালপুর উপজেলা থেকে গ্রেফতার করেছে তারাকান্দি তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ। পরে ওই শিক্ষককে আদালতে সোপর্দ করলে আদালত জেলহাজতে প্রেরণ করেন।

পুলিশ ও ম্যানেজিং কমিটি এবং ধর্ষিতা ছাত্রীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী উপজেলার পিংনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্রীকে (১৫) প্রাইভেট পড়িয়ে আসছিল একই বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক গোলাম মাসুদ। এ প্রাইভেট পড়ানোর সুযোগে শিক্ষক মেধাবী ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভনে বিভিন্ন স্থানে বেড়াতে নিয়ে ধর্ষণ করে আসছিল। এ ধারাবাহিকতায় গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিদ্যালয়ের ইংরেজি শিক্ষক গোলাম মাসুদ (৪৫) রাতে ছাত্রীকে সাজেশন দেওয়ার নামে ছাত্রীর কক্ষে প্রবেশ করে দশম শ্রেণীর (১৫) মেধাবী ছাত্রীকে ধর্ষণ করেন। ওই বিষয়টি ছাত্রী পিতা/মাতাকে অবগত করলে ছাত্রীর পিতা গত ১৮ সেপ্টেম্বর সোমবার বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হকের বরাবরে বিচার চেয়ে লিখিত আবেদন করেন। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে পিংনা উচ্চ বিদ্যালয়, পিংনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পিংনা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও পিংনা সুজাত আলী ডিগ্রি কলেজের শিক্ষার্থীরা শিক্ষক গোলাম মাসুদের শাস্তির দাবিতে বিদ্যালয়ের প্রধান গেটে তালা ঝুলিয়ে দিয়ে বিদ্যালয়ের সামনে প্রধান সড়কে দফায় দফায় বিক্ষোভ ও জুতা মিছিল করে।

সম্প্রতি ওই শিক্ষকের বিরুদ্ধে এক শিক্ষার্থীর সাথে অনৈতিক সর্ম্পকের অভিযোগে ২০০৭-০৮ পর্যন্ত বিদ্যালয়ের পরিচালনা পর্ষদ দুই বছরের জন্য সাময়িক বরখাস্ত করেছিল বলে বিদ্যালয় সূত্রে জানা গেছে।

পিংনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের পরিচালানা পর্ষদের সভাপতি ফতেহ লোহানী বলেন, ‘ধর্ষক শিক্ষককে বিদ্যালয় থেকে স্থায়ীভাবে অব্যাহতি দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে।’

তিনি আরো জানান, ‘আগামীকাল বুধবার সকালে শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে পিংনা এলাকাবাসী গণ বিক্ষোভের আয়োজন করবে।’

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোঃ মোজাম্মেল হক বলেন, ‘এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে ও শিক্ষকের শাস্তির দাবীতে পিংনা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ১০১৭ শিক্ষার্থীর পাঠদান দুই দিন যাবত বন্ধ আছে।’

সরিষাবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মো.রেজাউল ইসলাম খান বলেন, ‘ছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগে শিক্ষকের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ধর্ষিত ছাত্রীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য জামালপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ফরেনসিক বিভাগে প্রেরণ করা হয়েছে। শিক্ষক গোলাম মাসুদকে (৪৫) গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।’

Advertisement

Advertisement

কমেন্টস