ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় সাংবাদিককে মেরে রক্তাক্ত করেছে বখাটেরা

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ২১, ২০১৭

বিডিমর্নিং ডেস্ক-

গলির মধ্যে এক মেয়েকে ইভটিজিংয়ের প্রতিবাদ করায় মারধরের শিকার হয়েছেন আমাদের অর্থনীতি পত্রিকার প্রতিবেদক মাসুদ মিয়া।

সোমবার রাত ৮টার দিকে পূর্ব রাজাবাজারে আমাদের অর্থনীতি কার্যালয়ের পেছনের গলিতে বখাটেরা তাকে মেরে রক্তাক্ত করে।

এঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে আটক করতে পারেনি পুলিশ।

মাসুদ মিয়ার ভাই মো. কুদ্দুস মিয়া জানান, পূর্ব রাজাবাজারে আমাদের অর্থনীতি কার্যালয়ের পেছনে কয়েকজন বখাটে একটি মেয়েকে রাস্তায় শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করছিল।

এ সময় মাসুদ ও তার কয়েকজন সহকর্মী মেয়েটিকে বাঁচাতে এগিয়ে যান। তারা বখাটেদের হাত থেকে মেয়েটিকে বাঁচানোর চেষ্টা চালায় এবং তাদের ছবিও তুলে প্রমাণ হিসেবে।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে স্থানীয় বখাটে আল আমিনের নেতৃত্বে ১৫-১৬ জন তাদেরকে মারধর করে পালিয়ে যায়। এরমধ্যে মাসুদকে মেরে গুরুতর আহত করে বখাটেরা।

পরে সহকর্মীরা মাসুদকে উদ্ধার করে স্কয়ার হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

কিন্তু সেখানেও চিকিৎসায় অবহেলার অভিযোগ আনেন স্বজনরা।

শেরেবাংলা নগর থানার ওসি জি জি বিশ্বাস প্রতিবেদককে জানান, এমন একটি ঘটনা আমরা মৌখিকভাবে শুনেছি। কিন্তু লিখিত অভিযোগ না পাওয়ায় কাউকে গ্রেফতার করতে পারিনি।

তবে মাসুদের ভাই জানান, গত সোমবার মধ্যরাতেই মামলা দায়ের করা হয়েছে। কিন্তু অধিক রাত হওয়ায় আমাদের মামলার কপি দেয়নি পুলিশ। মামলার নম্বর ২২।

এরপর থানার এস আই জলিল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বলে জানান তিনি।

খোদ রাজধানীতে একটি মেয়েকে উত্ত্যক্তের প্রতিবাদ করায় একজন সাংবাদিককে মারধরের করার ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন মাসুদ মিয়ার চাচাতো ভাই আলোকিত বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সংবাদদাতা জিয়াদুল ইসলাম। তিনি অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

 

Advertisement

কমেন্টস